২৫ মে ২০২২
`

২৪ ঘণ্টার মধ্যে মুরাদকে গ্রেফতার না করা হলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারী

২৪ ঘণ্টার মধ্যে মুরাদকে গ্রেফতার না করা হলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারী -

আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা: মুরাদকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় না আনা হলে কঠোর আন্দোলন করা হবে বলে হুঁশিয়ারী দিয়েছে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন (ইশা)।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সংগঠনটির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে প্রতিমন্ত্রী ডা: মুরাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল এবং শামসুন্নাহার হলের নারী নেতৃবৃন্দকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে এমন হুঁশিয়ারী দেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

মানববন্ধনে ইশার সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি শফিকুল ইসলাম বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছরে এসেও একজন প্রতিমন্ত্রীর কাছে ধর্ষণের হুমকি পায় এদেশেরই একজন নারী। আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি ঠিকই কিন্তু স্বাধীনতার সুফল পাচ্ছি না। শুধু ডা: মুরাদ নয় আরো এমন কতিপয় মন্ত্রী আছেন যারা বিদেশী ভাষায় কথা বলে। তারা জনগণের ভাষা বুঝে না। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি ডা: মুরাদকে গ্রেফতার না করা হয় তাহলে ইশা কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা দিবে। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের হাফ পাস ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের পূর্ণ সমর্থন জ্ঞাপন করেন।

ঢাবি সভাপতি জামালউদ্দিন মোহাম্মদ খালিদ বলেন, মুরাদ শুধু একজন ব্যক্তি না, তিনি মন্ত্রী পরিষদের শক্তিশালী একজন সদস্য। তিনি যখন সবার বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্য করলেন তখন সবাই চুপ ছিল। আশ্চর্যের কথা হলো ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে বাজে মন্তব্য করার পরও ছাত্রলীগের সর্বোচ্চ নেতা কেউ এখন পর্যন্ত কোনো স্টেটমেন্ট দেয়নি। তাকে সরাসরি অপসারণ না করে পদত্যাগের নির্দেশ দেয়া হলো। কিন্তু আমরা চাই অতিদ্রুত নারী অবমাননা আইনে মামলা করে তাকে গ্রেফতার ও একইসাথে মন্ত্রীত্ব থেকে অপসারণ এবং সংসদ সদস্য পদ বাতিল করা হোক। একইসাথে নাহিদ নামের যে
ইউটিউবার তাকেও শাস্তির আওতায় আনা হোক।

মানববন্ধনে সংগঠনটির ঢাবি শাখার সহ-সভাপতি ইয়াসিন আরাফাত বলেন, ডা: মুরাদের কথাবার্তা, আচার-আচরণেই বুঝা যায় উনি একজন স্বাভাবিক মানুষ না। উনি যখন বিরোধী দলীয় নারীদের নিয়ে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিলেন তখন কেউ কোনো কিছু বললো না কিন্তু যখন নিজস্ব দলের ওপর আঘাত এলো তখন তাকে পদত্যাগের নির্দেশ দেয়া হলো।

মানববন্ধন শেষে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা একটি মিছিল নিয়ে শামসুন্নাহার হল ও রোকেয়া হলের সামনের রাস্তা প্রদক্ষিণ করে। এ সময় তারা 'ঢাবির অবমাননা-সহ্য করা হবে না।' 'ম-তে মুরাদ-তুই ধর্ষক তুই ধর্ষক' সহ বিভিন্ন স্লোগান দেন।


আরো সংবাদ


premium cement