৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`

ভাসানচরে গণস্বাস্থ্যের তিন দিনের মেডিক্যাল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

ভাসানচরে গণস্বাস্থ্যের তিন দিনের মেডিক্যাল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত - ছবি : সংগৃহীত

রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশ সরকার নির্মিত শরণার্থী শিবির ভাসানচরে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের একটি বিশেষজ্ঞ মেডিকেল ক্যাম্প শুরু হয়েছে। ১৮ অক্টোবর সোমবার থেকে ২০ অক্টোবর বুধবার পর্যন্ত তিন দিনব্যাপী এই ক্যাম্পের কার্যক্রম চলে। তিন দিনে মোট রোগী দেখা হয় ১,১১১ জন। আগত রোগীদের মাঝে মহিলা ও শিশু রোগীই ছিল বেশি। মেডিসিন, চক্ষু, গাইনি ও অবস, সার্জারি, চর্ম ও যৌন বিভাগের বিশেষজ্ঞরা রোগী দেখেন। রোগীদের বড় একটি অংশই চর্মরোগে ভুগছেন। এছাড়া আগত গর্ভবতী মা ও শিশুদের মাঝে অপুষ্টির লক্ষণ দেখা গেছে। প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও ওষুধের পাশাপাশি প্যাথলজি পরীক্ষা ও আল্ট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষা করার ব্যাবস্থা ছিল। তিন দিনে প্যাথলজি সেবা দেয়া হয়েছে ৪০২ জন রোগীকে এবং আল্ট্রাসনোগ্রাফি করা হয়েছে ২৩৮ জন রোগীর।

মেডিক্যাল ক্যাম্পে অংশ নিতে গত ১৬ অক্টোবর রাতে ঢাকা থেকে রওনা দিয়ে ১৭ অক্টোবর সকালে বিশেষজ্ঞ টিম ভাসানচরে পৌছে। ১২ সদস্যবিশিষ্ট এই টিমে রয়েছেন গণস্বাস্থ্য সমাজ ভিত্তিক মেডিক্যাল কলেজের শিশু বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. মেসবাহ উদ্দীন আহমেদ, সার্জারি বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. রতনগীর কবির, চক্ষু বিভাগের এসোসিয়েট প্রফেসর ডা. গৌর গোপাল সাহা, মেডিসিন বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. এটিএম আব্দুল হান্নান, চর্ম ও যৌন রোগ বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. ফাহমিদা হক, মেডিক্যাল অফিসার ডা. নিশাত তাসনিম, গাইনি এন্ড অবসের এসোসিয়েট প্রফেসর ডা. ফারজানা বেগম, মেডিক্যাল অফিসার ডা. ফারজানা আক্তার এবং সাইকোসোশ্যাল কাউন্সিলর মাহমুদা রেবা।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডা. মনজুর কাদির এই টিমকে নেতৃত্ব দেন। তিনি টিমের সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণ করার টিমের সাথে তিন দিন ভাসানচরে অবস্থান করেন এবং সরকারি বেসরকারি বিভিন্নসংস্থার সাথে আলোচনা করেন। তিনি বিশেষজ্ঞ টিম সাথে নিয়ে সরকার পরিচালিত ২০ বেডের হাসপাতাল পরিদর্শন করেন এবং কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করেন। বিশেষজ্ঞ দল হাসপাতালের বিভিন্ন দিক দেখে প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করেন।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র ইতিমধ্যে ২০ বেডের হাসপাতাল পরিচালনার জন্য সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করেছে বলে তিনি জানান।

এর আগে গত ১৬ অক্টোবর ২০২১ বিশেষজ্ঞ মেডিকেল টিমটি ঢাকা থেকে রওনা দিয়ে সড়কপথে হাতিয়ার চেয়ারম্যান ঘাট এসে সকালে সি-ট্রাকে করে ভাসানচর পৌঁছায়। ভাসানচর শরণার্থী শিবিরের একটি ভবনে তারা অবস্থান করেন। তিন দিনের ক্যাম্প শেষে ২১ ডিসেম্বর নৌবাহিনীর জাহাজযোগে সবাই চট্টগ্রাম হয়ে ঢাকা ফিরছেন।

এ সময় শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবসন কমিশনার (অতিরিক্ত) মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, ভাসানচর, ভাসানচর ক্যাম্প ইনচার্জ লেঃ কমান্ডার মো. কচিবুল ইসলাম (এসডি) ও অন্যান্য সরকারি বেসরকারি সংস্থার প্রধানবৃন্দ ক্যাম্প পরিদর্শন করেন এবং গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের এই উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র ২০১৭ সাল থেকেই কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে আসছে। কক্সবাজারে জাতিসঙ্ঘের শরনার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর-এর অন্যতম স্বাস্থ্যসেবা অংশীদার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। কক্সবাজারে ইউএনএইচসিআর-এর সহায়তায় ১০টি ক্যাম্প এবং মাল্টিসার ইন্টারন্যাশনাল এর সহায়তায় ৩টি ক্যাম্পে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। ভাসানচরে কক্সবাজার থেকে প্রথম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী স্থানান্তর হয় ৪ঠা ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে। অগ্রবর্তী টিম হিসেবে নভেম্বর ২০২০ থেকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র ভাসানচরে কাজ করছে এবং একজন এমবিবিএস চিকিৎসক এর নেতৃত্বে চিকিৎসা সেবা চলমান।



আরো সংবাদ