১৬ অক্টোবর ২০২১
`

করোনাকালেও অর্থনীতি শক্তিশালী অবস্থানে : খাদ্যমন্ত্রী


বাংলাদেশের অর্থনীতি করোনাকালেও শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদার। তিনি বলেন, ‘দেশের মাথাপিছু আয় বেড়ে এখন দুই হাজার ২২৭ ডলার। শ্রীলঙ্কাকে ঋণ দেয়া আমাদের অর্থনৈতিক সামর্থ্যের প্রমাণ বহন করে।’

বুধবার নওগাঁর পোরশা উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় উপকারভোগীদের মাঝে প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল এখন সর্বত্র দৃশ্যমান। ডিজিটাল বাংলাদেশকে আরো জোরদারকরণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ল্যাপটপ বিতরণের কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুর শিক্ষার সূচনা হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, শিশুরা যাতে ছোটবেলা থেকেই তথ্য প্রযুক্তির সাথে পরিচিত এবং দক্ষ হয়ে উঠতে পারে সেটা নিশ্চিত করা এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য।

মন্ত্রী বলেন, করোনাকালে দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড কিছুটা ব্যাহত হয়েছে। করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ায় উন্নয়ন কর্মকাণ্ড আবার গতি পেয়েছে।

নওগাঁ জেলার উন্নয়নে ‘নওগাঁ জেলা উন্নয়ন প্রকল্প’ গ্রহণ করা হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, খুব শিগগিরই এই প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হবে। এটা বাস্তবায়ন হলে নওগাঁ জেলার দৃশ্যমান পরিবর্তন হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে উন্নয়নের রোল মডেল বাংলাদেশ উল্লেখ করে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ২০৩০ সালের মধ্যে জাতিসঙ্ঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে নিজেদের অগ্রগতির স্বীকৃতি হিসেবে বিশেষ সম্মাননা ‘এসডিজি প্রগ্রেস অ্যাওয়ার্ড’ অর্জন করেছে বাংলাদেশ।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের দরিদ্র মানুষের জন্য সামাজিক নিরাপত্তার আওতা বাড়ানো হয়েছে। বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা এবং প্রতিবন্ধীভাতাসহ সব ধরনের ভাতা ভোগীদের আর্থিক সহায়তার পরিমাণও বৃদ্ধি করা হয়েছে। অসহায় দরিদ্র আর কেউ এ সুরক্ষার বাইরে থাকবে না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হামিদ রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পোরশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মঞ্জুর মোর্শেদ চৌধুরী।

সূত্র : ইউএনবি



আরো সংবাদ