২৫ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
`

জিয়াউর রহমান রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা তা স্বীকার করতে হবে : রুমিন ফারহানা

ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা -

আর্কাইভ করতে হলে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন তা অবশ্যই স্বীকার করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা।

গতকাল শুক্রবার জাতীয় সংসদে আর্কাইভ বিলের উপর জনমত যাচাইয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, মাননীয় স্পিকার, আর্কাইভ যদি করতে হয় তাহলে অবশ্যই স্বীকার করতে হবে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ছিলেন রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা। তিনি ছিলেন বীর উত্তম, এটাতো স্বীকার করতেই হবে। তিনি ছিলেন জেড ফোর্সের অধিনায়ক, সেক্টর কমান্ডার ও আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার।

মাননীয় স্পিকার, কৃষি বলেন, শিল্প বলেন আর অর্থনীতি বলেন সমস্ত বিপ্লব শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাত ধরে হয়েছিলো। আজকে আমাদের অর্থনীতির যে মূল ভিত্তি তা তৈরী করে দিয়েছিলেন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান।

বিএনপি দলীয় এই সংসদ সদস্য বলেন, আফ্রিকান একটি প্রবাদ আছে, ‘সিংহ ইতিহাস লিখতে জানলে প্রতিটা বিজয় শিকারির বিজয়গাঁথা হতো না।’ মুশকিল হচ্ছে ইতিহাস লিখেন সবসময় জয়ীরা। কিন্তু মানসিকতা যদি এমন হয় ‘আমাদের মতে অমত কার’ তাহলে তো ভয়ঙ্কর। এই যে এতো বড় সংসদ মাত্র দু থেকে তিনটা বিরোধী ক্ষীণ শব্দ শোনা যায়। কিন্তু সেই কণ্ঠ শোনা যাওয়ার সময় এতো উত্তেজনা দেখি। কথা বলতে না বলতে বলা হয় অপ্রাসঙ্গিক কথা। তাহলে তো সত্য সেটাই আপনারা যেটা বলেন। সত্যতো তাই যেটা আপনারা শুনতে চান। সত্যতো সেটাই যেটা আপনারা লিখেন, আপনারা চাপিয়ে দেন। আপনাদের বাইরেতো আর কোনো সত্য দেখি না।

এ সময় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যদের উদ্দেশ্য করে রুমিন বলেন, ‘মাননীয় স্পিকার, তারা তাদের কথা বলবেন আর আমরা আমাদের কথা বলবো। এই ধৈর্যটুকো যদি তাদের না থাকে তারা কী ইতিহাস লিখবেন? কী ইতিহাস চর্চা করবেন? ইতিহাসের আর্কাইভে গিয়ে কী জমা হবে? সেটাতো এইটুকো পরিবেশ দেখে আমরা ভালোই বুঝতে পারছি।’

তিনি বলেন, যতদিন পর্যন্ত দলীয় চশমা লাগিয়ে ইতিহাস লেখার চেষ্টা করা হবে ততদিন পর্যন্ত আপনি যতই আর্কাইভ করুন কোনো লাভ হবে না। সঠিক ইতিহাস পাওয়া যাবে না। এজন্য আমাদের মতো দেশে সঠিক ইতিহাস পেতে শত বছর লেগে যায়। তা না হলে আজকে ৪০ বছর পর জিয়াউর রহমানের কবর নিয়ে কেনো এতো বিতর্ক? এই বিতর্ক সরকারের সমস্ত ব্যর্থতা, মানবাধিকার লঙ্ঘন, ভোটচুরি, গণতন্ত্রহীনতা, লুটপাট এসব থেকে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে নেয়ার জন্য।

বিএনপি দলীয় এই সংসদ সদস্য বলেন, মাননীয় স্পিকার, ইতিহাস লিখবেন ইতিহাসবিদরা। ইতিহাস নিয়ে গবেষণা করবে গবেষকরা। কিন্তু ইতিহাস যখন রাজনীতিকরা লেখা শুরু করেন, ইতিহাস যখন আইনের অংশ হয়ে যায় তখনতো বড় মুশকিল।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের আর্কাইভ বিল-২০২১ পড়তে গিয়ে দেখছি, সরকার ২৫ কিংবা ততাধিক বছরের পুরানো নথি সংগ্রহের কথা বলছে। মাননীয় স্পিকার, ২৫ বছর পুরানো নথি সংগ্রহ করার উদ্যোগ খুবই চমৎকার। কিন্তু সেটা যদি রাজনৈতিক নথি হয়, নিজের পছন্দমতো নথি হয়, নিজের লেখা নথি হয় তাহলে তো বড় মুশকিল।

রুমিন বলেন, সম্প্রতি একটি পত্রিকায় দেখলাম সরকার শুধু অতীতের নথি নয়, বর্তমানের নথি নিয়েও অত্যন্ত উদগ্রীব। সরকার নাগরিকদের সব তথ্য নিয়ে একটি ডিজিটাল আর্কাইভ করতে চায়। সেই ঘোষণাও সরকার দিয়েছে। এই লক্ষ্যে ‘পারসোনাল ডেটা প্রটেকশন অ্যাক্ট’ নামে একটি আইন তৈরি হচ্ছে। আইনটির প্রাথমিক তথ্য পড়ে মনে হয় ‘এক গ্রামে রক্ষা নাই, সুগ্রিব দোসর।’ ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের ধাক্কাতো আছেই, সেই সাথে যুক্ত হয়েছে পারসোনাল ডেটা প্রটেকশন অ্যাক্ট।

তিনি বলেন, এই আইনের আওতায় বাংলাদেশের নাগরিকদের ডেটা বাংলাদেশের ভেতরে রাখার নামে ফেইজবুক, হটসঅ্যাপ, টুইটারসহ টেক জয়ান্টদের বাংলাদেশে সার্ভার স্থাপন করতে হবে। এই পর্যন্ত হলে কোনো সমস্যা ছিলো না মাননীয় স্পিকার। আবার সেখান থেকে যেকোনো তথ্য সরকার নিতে পারবে ও প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারবে। এই পুরো বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করবে সরকারের নিয়োগ দেয়া একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। তার অধীনে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তথ্য সংগ্রহের কাজ করতে না পারলে এই তথ্য সংগ্রহের দায়িত্ব ত্বিতীয় পক্ষ নিবে।

তিনি আরো বলেন, মাননীয় স্পিকার, বিগত কয়েক বছরে অন্তত এক যুগ ধরে সরকার কিভাবে তথ্য নেয় এবং সেটা জনগণের বিরুদ্ধে ব্যবহার করে তা আমরা দেখেছি। ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট দিয়ে কী ধরনের মামলা দেয়, আমাদের কিভাবে জেলে পাঠায় এবং সেখানে কী ধরনের আচরণ করে তা আমরা দেখেছি। তাই বলবো ‘পারসোনাল ডেটা প্রটেকশন অ্যাক্ট’ মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা।



আরো সংবাদ


বাংলাদেশ দখলের হুমকি দিয়ে লাভ কার (৫৬২৬১)অভাবের তাড়নায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন বিজিবি সদস্য! (১৭৫২২)ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন আন্তর্জাতিক তায়কোয়ান্দোর রেফারি ড. পেটেল (১৫৭৭১)গেইলের প্রয়োজন ৯৭ রান, সাকিবের ১ উইকেট (৯১৫৯)প্রতিরক্ষার মতোই যোগাযোগ অন্যের হাতে রাখতে পারি না : এরদোগান (৬৬৫৫)মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে ব্যাপক সৈন্য সমাবেশ, গণহত্যার আশঙ্কা জাতিসঙ্ঘের (৬৬০৪)ভারতের বিরুদ্ধে দলে যাদের রেখেছে পাকিস্তান (৬৩২১)সিরিয়ায় ইসরাইলি বিমান হামলায় বাধা দিবে না রাশিয়া (৬২২৬)আজ থেকে সুপার লিগ : সুপার টুয়েলভের কখন কোন দলের খেলা (৫৮৭৪)পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহারের বিষয়ে চুক্তির দ্বারপ্রান্তে যুক্তরাষ্ট (৫৭৭৯)