২২ জুন ২০২১
`

‘করোনায় পরিবহন শ্রমিকদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে’

পরিবহন শ্রমিকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ - ছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাবেক এমপি আ ন ম শামসুল ইসলাম বলেছেন, করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট দুর্যোগ শ্রমজীবী মানুষদের চরম সঙ্কটে ফেলে দিয়েছে। অপ্রাতিষ্ঠানিক সেক্টরে নিয়োজিত অসংখ্য শ্রমিক কর্মহারা। তারা পরিবার পরিজন নিয়ে অতিকষ্টে জীবন অতিবাহিত করছে।

বিশেষত পরিবহন সেক্টরে নিয়োজিত অর্ধকোটি শ্রমিক আজ কর্মহারা। তাদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

সোমবার বাংলাদেশ পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন আয়োজিত পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পরিবহন শ্রমিকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কবির আহাম্মাদের সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আতিকুর রহমানের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কার্যকরি কমিটির সদস্য মাওলানা নুরুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

শামসুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশে শ্রম অঙ্গনে পরিবহন সেক্টর অতি গুরুত্বপূর্ণ। দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পেছনে পরিবহন শ্রমিকদের অবদান অপরিসীম। কিন্তু যাদের হাত ধরে দেশের অর্থনীতির বিকাশ ঘটে তারাই অবহেলার শিকার। পরিবহন শ্রমিকদের চাকরির কোনো নীতিমালা নেই। নেই সঠিক কর্মঘণ্টার প্রয়োগ। সারাদিন চরম খাটুনি করে নামমাত্র বেতন পেয়ে তাদের সন্তুষ্ট থাকতে হয়। করোনা সঙ্কটে চালক-হেল্পাররা কর্ম হারিয়ে বেকার জীবন পার করছে। এই সময় তাদের সহযোগিতার জন্য সরকারকে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

তিনি আরো বলেন, পরিবহন সেক্টরসহ সকল অপ্রাতিষ্ঠানিক কর্মক্ষেত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপে পরিচালনার জন্য নীতিমালা তৈরি ও বাস্তবায়ন করতে হবে। বেকার পরিবহন শ্রমিকদের ভাতা প্রদান করতে হবে। এক্ষেত্রে মালিক ও সরকারকে বিশেষ ভাবে এগিয়ে আসতে হবে। লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত চালক-হেল্পারসহ পরিবহন শ্রমিকদের ঈদুল ফিতরের জন্য বিশেষ ভাতা দিতে হবে। নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী পরিবহন শ্রমিকদের পৌঁছে দিতে হবে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি



আরো সংবাদ