১৯ এপ্রিল ২০২১
`

পুলিশি ব্যারিকেডে স্বেচ্ছাসেবকদলের প্রতিবাদ সভা চলছে

পুলিশি ব্যারিকেডে স্বেচ্ছাসেবকদলের প্রতিবাদ সভা চলছে - ছবি : নয়া দিগন্ত

রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশি ব্যারিকেডের মধ্যেই শুরু হয়েছে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিবাদ সমাবেশ। শনিবার সকাল ১০টায় এ প্রতিবাদ সভা শুরু হয়। লেখক মুশতাক আহমেদ ও সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে এ সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল।

শনিবার সকাল ৮টা থেকেই প্রেসক্লাবের আশপাশের সকল সড়কের পাশে পুলিশি ব্যারিকেড দেয়া হয়েছে। বিনা অনুমতিতে কাউকেই ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। রাস্তার পাশ দিয়ে যাওয়া বাস বা অন্য যানবাহন থেকে কোনো বিএনপির নেতাকর্মী নামলে তাদেরকে আটকে রাখা হচ্ছে। তবে সকাল থেকেই হাজার খানেক স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের সামনে বসে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে প্রতিবাদ সমাবেশে নেতাকর্মীর ঢল নামছে।

আজকের প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত রয়েছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম সরোয়ার, সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ প্রমুখ।

এদিকে স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিবাদ সমাবেশ ঘিরে প্রেসক্লাব ও আশপাশের এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও নিরাপত্তা বজায়ে পুলিশ চারপাশে কড়া নজর রাখছে।

উল্লেখ্য, ১৯ ফেব্রুয়ারি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ শুরু হলে তা থামাতে উভয়পক্ষের ওপরে অ্যাকশনে নামে পুলিশ। ত্রিপক্ষীয় মারমুখী এই পরিস্থিতিতে গুলিবর্ষণের ঘটনাও ঘটে।

এ সময় বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন, তাদেরই একজন অনলাইন পোর্টাল বার্তাবাজারের স্থানীয় প্রতিনিধি বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির। পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় কোনো এক পক্ষের গুলিতে রক্তাক্ত হন ২৫ বছর বয়সী এই সাংবাদিক। উন্নত চিকিৎসা দিতে ঢাকায় আনা হলেও বাঁচানো সম্ভব হয়নি তাকে।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কারাবন্দী লেখক মুশতাক আহমেদ (৫৩) রাতে মারা গেছেন। তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে ছিলেন।

কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মুশতাক আহমেদ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে কারাগারের ভেতর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে প্রথমে কারা হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মৃত ঘোষণা করেন।

গত বছরের মে মাসে লেখক মুশতাক আহমেদকে র‌্যাব গ্রেফতার করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে র‌্যাব।



আরো সংবাদ