২৮ অক্টোবর ২০২০

আওয়ামী লীগ দেশে বিপথগামী ও পৈশাচিক সমাজ তৈরি করেছে : রিজভী

আওয়ামী লীগ দেশে বিপথগামী ও পৈশাচিক সমাজ তৈরি করেছে : রিজভী - ছবি : নয়া দিগন্ত

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশে বিপথগামী ও পৈশাচিক সমাজ তৈরি করেছে। তারা ক্রসফায়ার দিয়ে মানুষ হত্যা করছে। প্রতিমাসে দু'একজন বিএনপির নেতাকর্মীও আছেন। কিন্তু তাদের রক্তবিন্দু থেকেই জাতীয়তাবাদীদের জন্ম হয়। তিনি বলেন, সরকার আমাদের অনেক লোককে গুম করে ফেলেছে। কিন্তু তবুও বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে পারবেন না।

রোববার বিকেলে জিয়া সাংস্কৃতিক সংগঠন (জিসাস) এর ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জিসাসের চেয়ারম্যান নাহিদ গুলনার ইভার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল সালাম, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, সাংস্কৃতিক ঐক্যজোটের মহাসচিব রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রী প্রতিবেশির সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন করছেন। কিন্তু দেশের নাগরিকরা নিজ বাসায় অনিরাপদ। প্রকাশ্যে নারীর সম্ভ্রমহানি হয়। ছাত্রলীগ সিলেটের এমসি কলেজে নারী লাঞ্ছনা করেছে কোনো ব্যাবস্থা নেয়নি। ভারতকে নিয়ে ফেসবুকে লেখার কারণে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার হত্যাকাণ্ডের কোনো বিচার নেই। বরং হত্যাকারীদের জেলখানায় পরীক্ষার খাতা সরবরাহ করা হচ্ছে। তারা বহু ছাত্র হত্যা করছে। ছাত্রদল না পেলে নিজেরা নিজেরা মারামারি কোপাকুপি করে।

রিজভী বলেন, ধর্ষিতা নারীর কান্না কি প্রধানমন্ত্রী ও ওবায়দুল কাদেরের কানে যায় না? তারা কি ক্রসফায়ারে মারা যাওয়া স্বজনদের কান্না শোনেন না। আমাদের দলের নেতা ইলিয়াস আলী, সাইফুল ইসলাম হীরু, পারভেজ, সুমন সহ বহু নেতাকর্মী অদৃশ্য।

এসময় অভিযোগ করে তিনি বলেন, সরকারের অপকর্মের বিরুদ্ধে বিএনপি ও ছাত্রদল যাতে কোনো কর্মসূচি করতে না পারে সেজন্য লাঠি সোটা রাম দা নিয়ে হামলে পড়ে তারা। আজকে জ্ঞান বিতরণ ও বিচ্ছুরণের প্রতিষ্ঠান হয়ে যাচ্ছে কসাইখানা ও নারী লাঞ্ছনার কেন্দ্র।


আরো সংবাদ