৩১ মার্চ ২০২০

আল্লামা সাঈদীর মুক্তি দাবি জাগপা সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধানের

আল্লামা সাঈদী - সংগৃহীত

জাগপা সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান বলেছেন, আমি আপনাদের সবাইকে মহান স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানাই। মহান স্বাধীনতা দিবসে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি সেইসব অকুতোভয় বীর সেনানী আর সম্ভ্রমহারা মা, বোনদের যাদের অদম্য সাহস আর আত্মত্যাগে আমাদের বিজয় এসেছিল। রক্ত ঝরা স্বাধীনতার মাসে, দীর্ঘ ২৫ মাস পর দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পেয়েছেন। আমি মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে শুকরিয়া জানাই। আমি আনন্দিত কিন্তু একইসাথে দুঃখিত কারণ বিএনপি কিংবা ২০ দল আন্দোলন-সংগ্রাম কিংবা আদালতের মাধ্যমে দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে পারেনি। এই ব্যর্থতা আমাদের সবার, এই ব্যর্থতা সমগ্র জাতির। দেশনেত্রীর সাজা স্থগিত করে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দেয়ার জন্য আমি ধন্যবাদ জানাই প্রধানমন্ত্রী ও সরকারকে। তবে নিজ বাসা থেকে চিকিৎসা নেয়ার শর্তটিকে বিবেচনা করে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশনেত্রী এবং ওনার পরিবারের সদস্যদের পছন্দের হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার অনুমতি দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই। বয়স বিবেচনায় ও মানবিক কারনে যেভাবে দেশনেত্রীর শর্ত সাপেক্ষে ছয় মাসের মুক্তি হয়েছে একইভাবে এই করোনা পরিস্থিতিতে অন্যান্য রাজনৈতিক নেতারও মুক্তি হওয়া প্রয়োজন। আমি বয়স বিবেচনায় ও মানবিক কারণে আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তি দাবি করছি।

বুধবার গণমাধ্যমকে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, দেশের করোনা পরিস্থিতি আমাদের আয়ত্বে নেই। প্রাথমিক পর্যায়ে সরকারের দায়িত্বহীনটা আমাকে ব্যথিত করেছে। সরকারের টনক নড়তে অনেক দেরি হয়েছে, এর মধ্যেই আমাদের যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে গেছে। এখন এই ভাইরাসের সাথে লড়তে আমাদের নিজেদের সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। দেশনেত্রীর মুক্তির সময় হাসপাতালের সামনে এবং তার বাসভবনের সামনের দৃশ্য দেখে আমি শঙ্কিত। আপনারা দেশনেত্রীর মুক্তির সংবাদে আবেগে আপ্লুত কিন্তু দেশনেত্রীর কথা চিন্তা করেই আপনাদের এখন শান্ত থাকতে হবে, নেত্রীর থেকে দূরে থাকতে হবে। দেশনেত্রীর মুক্তি সংবাদ আমাকেও আনন্দিত করেছে, আমারও ইচ্ছে করছে তার পরিবারের অনুমতি নিয়ে একবার তার সাথে সাক্ষাত করার কিন্তু এরকম পরিস্থিতিতে তা উচিৎ নয়। দেশনেত্রীকে বিশ্রাম নিতে দিন, আপনারা এই করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিজ নিজ বাসায় অবস্থান করেন। আপনারা অবগত আছেন আমরা স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের সব কর্মসূচি বাতিল করেছি। কোনো স্থানে জাগপা’র কোনো আলোচনা সভা, মিছিল, র‍্যালি, গনজমায়েত যাতে না হয় এ ব্যাপারে দলের নেতাকর্মীরা সজাগ দৃষ্টি রাখবেন।
সূত্র : প্রেস বিজ্ঞপ্তি


আরো সংবাদ

ফটিকছড়িতে দুস্থদের মাঝে পুলিশের খাদ্য বিতরণ করোনা সচেতনতায় উপজেলা জুড়ে ব্যানার সাঁটাচ্ছে প্রশাসন ইউরোপে করোনাভাইরাসে কনিষ্ঠতম শিশুর মৃত্যু করোনাভাইরাস : ভারতে মাওলানা সাদ ও তাবলিগ জামাত কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করোনা আতঙ্কের মধ্যে গণজমায়েত করে বিচারের আয়োজন, মারামারি করে ভণ্ডুল চৌগাছায় অর্ধশত দুস্থ পরিবারকে খুঁজে খাদ্য সামগ্রী দিলেন ইউএনও ইরাকে করোনায় মৃতদের কবর দেয়া নিয়ে শঙ্কা মধুপুরে করোনা উপসর্গে এক যুবকের মৃত্যু, বাড়ি লকডাউন করোনা আতঙ্কে বন্ধ জাদুঘর! চুরি ভ্যান গগের আঁকা বহুমূল্য চিত্র করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩৯ হাজার ছাড়িয়েছে করোনা আতঙ্কে হবিগঞ্জে ২৩ চা বাগানের শ্রমিকরা স্বেচ্ছা ছুটিতে

সকল