০৩ এপ্রিল ২০২০

অনৈতিক কাজ করে কোটিপতি হওয়া পাপিয়াকে যুবমহিলা লীগ থেকে বহিষ্কার

অনৈতিক কাজ করে কোটিপতি হওয়া পাপিয়াকে যুবমহিলা লীগ থেকে বহিস্কার - ছবি : সংগৃহীত

অনৈতিক কাজ করে কোটি কোটি টাকার মালিক হওয়া শামিমা নূর পাপিয়াকে যুব মহিলা লীগ থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। তিনি নরসিংদী জেলা যুবমহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

রোববার যুবমহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি নাজমা আকতার ও সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ যুবমহিলা লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, নরসিংদী জেলা যুবমহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নূর পাপিয়াকে সংগঠনের ২২ (ক) উপধারা অনুযায়ী দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হল। এ সিদ্ধান্ত অবিলম্বে কার্যকর হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

শনিবার ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে পাপিয়া ও তার স্বামীসহ ৪ জনকে আটক করে র‌্যাব। এই দুই দম্পতি তাদের দুই সহযোগীকে নিয়ে বিদেশে পালানোর চেষ্টা করছিলেন বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানায় র‌্যাব।

পাপিয়া ছাড়া আটক অন্যরা হল- তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমন, সুমনের ব্যক্তিগত সহকারী এক তরুণী ও তাদের আরেক সহযোগী সাব্বির খন্দকার।

গাড়ির ব্যবসার আড়ালে পাপিয়া অবৈধ অস্ত্র, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত। সমাজসেবার নামে তিনি নরসিংদীর অসহায় নারীদের অনৈতিক কাজে লিপ্ত করে আসছিলেন। অধিকাংশ সময় তিনি নরসিংদী ও রাজধানীর বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে অবস্থান করেন। সেখানে তার ও তার স্বামীর ব্যবসায়িক অংশীদারদের অসামাজিক কার্যকলাপের জন্য নারী সবরবরাহ করাই ছিল তার মূল কাজ।

রাজধানীর গুলশানের অভিজাত হোটেল ওয়েস্টিনের প্রেসিডেন্ট স্যুট ভাড়া নিয়ে পাপিয়া অসামাজিক কার্যকলাপ চালাতেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব।


আরো সংবাদ