০৭ আগস্ট ২০২০

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির মশাল মিছিল

24tkt

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে মশাল মিছিল করেছে বিএনপি এবং এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। শনিবার সন্ধ্যায় মিছিলটি রাজধনীর ব্যস্ততম এলাকা গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট থেকে শুরু হয়ে পল্টন মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।

মশাল মিছিলে নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। মিছিলে অন্যদের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু আশফাক, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, নিপুণ রায় চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহীন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক কাউসারসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

মিছিল শেষে এক পথসভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন ও চারবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেয়ার পরও নির্যাতনের মাত্রা আরো বৃদ্ধি করা হয়েছে। বর্তমান ফ্যাসিবাদী সরকার বেগম জিয়াকে তার ন্যায়সঙ্গত অধিকার জামিন থেকেই কেবল বঞ্চিত করছে না; বরং শারীরিকভাবে ভীষণ অসুস্থ একজন বয়স্ক নারীকে সুচিকিৎসা থেকেও বঞ্চিত করছে। আমি বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানাই-এখন আর ঘরে বসে থাকলে চলবে না। গণতন্ত্রের আপোসহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে সকল বাধা উপেক্ষা করে এখন রাস্তায় নামতে হবে।

তিনি সরকার প্রধানের একরোখা বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত দুই দিন আগের হিংসাত্মক বক্তব্যের উদ্দেশ্যই ছিল দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন না দিতে বিচার বিভাগ এবং বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষকে প্রভাবিত করা। তবে আমাদের বিশ্বাস সরকারের সকল নজরদারী ও হুমকিকে উপেক্ষা করে সর্বোচ্চ আদালত বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন দিয়ে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করবেন।

এখন দেশ চলছে এক ব্যক্তির ভয়ঙ্কর কর্তৃত্ববাদী শাসন, যেখানে দেশের জনগণ এবং গণতন্ত্রে বিশ্বাসী বিরোধী পক্ষকে বন্দী করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। আর সেই কারণেই বিরোধী দল ও মতের ওপর চলছে অবর্ণনীয় নানামুখী নির্যাতন। সরকারের চরম প্রতিহিংসাপরায়ণ আচরণে এটি স্পষ্ট যে, বেগম জিয়ার কারামুক্তিতে এখন রাজপথই আমাদের একমাত্র সমাধান। তাই জনগণকে সাথে নিয়ে আন্দোলন- সংগ্রামের কোনো বিকল্প নেই। সরকার যদি জনরোষ থেকে বাঁচতে চায় তাহলে অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। নইলে জনরোষের থাবা থেকে রেহাই পাবে না বর্তমান স্বৈরাচারী শাসকগোষ্ঠী। আমি আবরো অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানাচ্ছি। মিছিলে নেতাকর্মীরা বেগম জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেন।


আরো সংবাদ

দিল্লিতে নাবালিকাকে চরম অত্যাচার করে ধর্ষণ নোয়াখালীতে ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৬৩ জন করোনায় আক্রান্ত মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুর আরেক খুনিকে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সরকার আশাবাদী : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারত সফর স্থগিত করলো ইংল্যান্ড সরকারি অফিস পুরোপুরি খোলার সিদ্ধান্তে আতঙ্ক জাহাজ ভর্তি ভয়াবহ বিস্ফোরক বৈরুতে পৌঁছল যেভাবে তাহিরপুরে ভারতীয় বিড়িসহ তিনজন আটক শিবপুরে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীর লাশ উদ্ধার, মৃত্যু নিয়ে রহস্য করোনার দুর্বলতা, সংক্রমণ থেকে বাঁচার উপায় জামায়াত কর্মী জহুরুল হকের ইন্তেকালে দলটির শোক সড়ক দুর্ঘটনায় জামায়াত কর্মী নূর মোহাম্মদের ইন্তেকালে জামায়াতের শোক

সকল