২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মীর নাছির-মীর হেলালের সাজা বহাল : বিএনপি মহাসচিব-আইনজীবী ফোরামের উদ্বেগ

-

বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন ও তার ছেলে ব্যারিস্টার মীর মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিনকে দুর্নীতির মামলায় বিচারিক আদালতের দেওয়া সাজা হাইকোর্টে বহাল রাখার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম আহ্বায়ক খন্দকার মাহবুব হোসেন ও সদস্য সচিব মো. ফজলুর রহমান।

শুক্রবার পৃথক বিবৃতিতে তারা এ উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকার বিএনপিসহ বিরোধী দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যা মামলা দিয়ে বিরতিহীনভাবে হয়রানী করে চলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন এবং তার পুত্র ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ব্যারিষ্টার মীর মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে নিম্ন আদালতের সাজা উচ্চ আদালতে বহাল রাখা হলো। সরকারের চক্রান্তেই সাজানো মামলায় এই সাজা দেয়া হয়েছে। যদিও ২০১০ সালে হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ দু’জনকে খালাস দেয়। কিন্তু সরকার আপীল করে পুনরায় বিচারের জন্য হাইকোর্টে ফেরত পাঠান। এই ঘটনাতেই প্রমাণিত হয় যে, সরকার বিএনপি নেতাদের ধ্বংস করার জন্য নানাভাবেই চক্রান্ত এঁটে চলেছে। মিথ্যা ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় উচ্চ আদালত কর্তৃক মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন এবং তার পুত্র ব্যারিষ্টার মীর হেলাল এর সাজা বহাল রাখার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি এবং অবিলম্বে মিথ্যা মামলা ও সাজা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানাচ্ছি।

অন্যদিকে আরেক বিবৃতিতে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম আহ্বায়ক প্রবীণ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন ও সদস্য সচিব মো: ফজলুর রহমান বলেছেন, রাজনৈতিক নেতাদের হয়রানী করার জন্য বিভিন্নভাবে মামলা দেয়া হচ্ছে। বিগত ওয়ান ইলেভেনের সময় হয়রানী করার জন্য রাজনৈতিক নেতাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা করা হয়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে তাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করেছে। অপর দিকে বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ওই সময় দায়ের করা মিথ্যা মামলায় বিভিন্নভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। তারা অবিলম্বে মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন এবং ব্যারিস্টার মীর মোহাম্মদ হেলালের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও সাজা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।


আরো সংবাদ

জিয়া রাজীবদের উপরে সুব্রত আর্মি স্টেডিয়ামে অ্যাথলেটিক্স মিট জেলা ও ক্লাব নিয়ে তাবিথের পরিকল্পনা বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির জরিপ : করোনার প্রভাবে কক্সবাজারে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা      জেলা পুলিশের ১৪৮৭ জনবল বদলি, কক্সবাজারের ৮ থানায় নতুন ওসির যোগদান  সৈয়দপুরে পশু খাদ্যের চরম সঙ্কট, দিশেহারা খামারীরা সীমান্ত হত্যা বন্ধের দাবিতে ঢাকা থেকে পদযাত্রাকারী হানিফ এখন রংপুরে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে ১ বছর ধরে ধর্ষণ, ২ ভাসুরের বিরুদ্ধে মামলা সবগুলো নদী খনন করে বাঁধ নির্মাণ করা হবে : প্রতিমন্ত্রী রুহিয়ায় ঘর বাড়ি ও আমন ক্ষেত পানির নীচে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত থেকে অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

সকল

যে কারণে এই মুহূর্তেই এ সরকারের পতন চান না নুর (১১২০৪)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : আ’লীগ নেতারা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন! (৯০৬৯)সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ ছাত্রলীগ কর্মীদের (৭৭১৭)এমসি কলেজে ‘গণধর্ষণ’ : ছাত্রদের ছাত্রাবাস ছাড়ার নির্দেশ (৬৪১১)সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ ছাত্রলীগ কর্মীদের (৬২০৩)নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে ধরা পড়ল দৈত্যাকার ইঁদুর! (ভিডিও) (৫৮৪০)পাবনা উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন (৫৬৩১)ক্রিকেট ছেড়ে সাকিব এখন পাইকারি আড়তদার! (৫৪৬১)হিমায়িত মাছ-গোশতেও করোনা? (৪৪৯৩)ঐক্যবদ্ধ হামাস-ফাতাহ, ১৫ বছর পর ফিলিস্তিনে ভোট (৪০০৪)