০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট ঘোড়ার সাথে তিন বুলডগের বন্ধুত্ব

পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট ঘোড়ার সাথে তিন বুলডগের বন্ধুত্ব - ছবি সংগৃহীত

এ গল্পে পিবয় নামের ছোট্ট এক চমৎকার ঘোড়ার সাথে ভীষণ অন্যায় আচরণ করা হয়েছে। ছোট্ট এ ঘোড়ার সৌন্দর্যের সাথে ব্যাপারটা বড়ই বেমানান।

এ ছোট্ট ঘোড়াটি তার মায়ের কাছে প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর তিন বুলডগের সাথে চমৎকার বন্ধুত্ব গড়ে তুলেছে। উচ্চতায় খুবই ছোট হওয়ায় ঘোড়াটি তার মা ঘোড়ার স্তনের নাগাল না পাওয়ার কারণে প্রত্যাখ্যাত হয়। এছাড়া ঘোড়াটিকে তার আগের আগের মালিক বোবা ও অন্ধ বলে মনে করত। ঘোড়াটির পায়ে ও মুখের চোয়ালে সমস্যা ছিল। ঘোড়াটি ঠিক মতো দাঁড়াতে পারত না।

এখন তিন বুলডগের সাথে ছোট্ট ঘোড়াটির চমৎকার বন্ধুত্ব গড়ে ওঠার পেছনে রয়েছে ফেইথ স্মিথ নামের এক ব্যক্তির অবদান। ফেইথ স্মিথ ৫৫ বছর বয়স্ক এক ভদ্রলোক, পেশায় খর্বাকৃতির ঘোড়ার প্রশিক্ষক। তিনি সান ডিয়াগোতে বাস করেন। তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে এ খর্বাকৃতির বাচ্চা ঘোড়াটিকে তিনি বদ্ধ পরিবেশ থেকে বাইরে নিয়ে আসবেন, যাতে করে ঘোড়াটির পরিচর্যা বা যত্ন করা যায়। তিনি ঘোড়াটিকে উদ্ধারের কিছু দিন পর ঘোড়টি ভালোভাবে বেড়ে উঠতে থাকে। ঘোড়াটির চোয়াল ঠিক হয়ে যায় আর এটা হাাঁটতেও শিখে ফেলে।

ছয় সপ্তাহ বয়সী পিবয় নামের এ ছোট্ট ঘোড়াটির ওজন ১৯ পাউন্ড। খর্বাকৃতির হলেও ঘোড়াটি এখন তার তিন বুলডগ বন্ধুর সাথে এক চমৎকার আয়েশী জীবনে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে।

ফেইথ স্মিথের মতে, বয়স অনুসারে পিবয় পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট ঘোড়া।

সূত্র : টাইমস নাও নিউজ ডটকম


আরো সংবাদ


premium cement