২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
`

টয়লেটে বসতেই নারীর নিতম্বে সাপের ভয়ঙ্কর ছোবল, অতঃপর....


এক নারী টয়লেট ব্যবহার করছিলেন যখন, ঠিক তখনই ঘটে ভয়ঙ্কর ঘটনা৷ ওই নারীকে ছোবল মারে ৭ ফুট লম্বা এক সাপ৷ থাইল্যান্ডে ঘটেছে ওই ভয়ানক ঘটনা৷ বুনসঙ্গ এলাকাইব (৫৪) নামের ওই নারী সুমত প্রকারণ এলাকার বাড়িতে নিজের টয়েলেটে গিয়েছিলেন৷ এই সময় শরীরের নিম্নাঙ্গে অসহ্য যন্ত্রণা অনুভব করেন ওই নারী৷

সাপ ছোবল মারার পর নারীর শরীর থেকে ফিনকি দিয়ে রক্ত বের হতে থাকে৷ পুরো কাপড় রক্তে ভেসে যায়৷ এছাড়াও নারীর পায়ের আঙুলেও কামড় বসিয়েছিল সাপ৷

কোনো রকমে টয়লেটে থেকে বেরিয়ে আসেন নারী। আর সাহায্যের জন্য আর্তনাদ করতে থাকেন৷ তার স্বামী প্রথমে টয়লেটের দরজা বন্ধ করে সাপটিকে আটকে দেন৷ তারপর সাপ ধরার লোক ডাকেন৷ প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে নারীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷

হাসপাতালে সেই নারী জানান, তিনি দেখতে পাননি টয়লেটের মধ্যেই সাপটি বসেছিল৷ তবে সাপটি বিষধর না হওয়ায় প্রাণে বেঁচে যান মারাত্মকভাবে জখম ওই নারী৷ সাপটিকে স্থানীয় বন্য প্রাণ দফতর সাপটিকে ধরে নিয়ে যায়৷

সাপ কাটার এই ঘটনা জানার পর যখনই শৌচালয় ব্যবহার করার জন্য বসবেন তখনই দেখে নেওয়া অতি জরুরি৷ এখনো সাপে কাটা প্রৌঢ়া নিজের যৌনাঙ্গে যন্ত্রণা অনুভব করছেন৷ এর আগেও এক যুবকের সঙ্গে এই ঘটনায় ঘটেছিল৷ থাইল্যান্ডে সেই যুবকের যৌনাঙ্গে কামড় দিয়েছিল সাপ৷

ঘটনাটি রাজধানী ব্যাঙ্ককের ১৩ মাইল উত্তরে হয়েছে৷ চিকিৎসকরা সেই যুবকের যৌনাঙ্গে তিনটি স্টিচ করেছিলেন৷ তাকে অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ দিয়েছিলেন৷ এই সাপটি প্রায় ৪ ফুট লম্বা ছিল৷

সূত্র : নিউজ১৮



আরো সংবাদ