০২ জুলাই ২০২২
`

পৌরসভা গঠনে নতুন শর্ত

পৌরসভা গঠনে নতুন শর্ত - ছবি : সংগৃহীত

এখন থেকে পৌরসভা ঘোষণা করতে হলে জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কিলোমিটারে গড়ে দুই হাজার হতে হবে, এতদিন যা ছিল দেড় হাজার। কোনো এলাকাকে পৌরসভা হিসেবে ঘোষণা হলে তা বাস্তবায়ন করার জন্য এবং পৌরসভার নির্বাহী পরিষদের মেয়াদ শেষে নতুন পরিষদ দায়িত্ব না নেয়া পর্যন্ত প্রশাসক নিয়োগ দিতে পারবে সরকার।

এ দুটি বিধান সংযুক্ত করে স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) সংশোধন বিল-২০২২ পাস করেছে জাতীয় সংসদ।

বৃহস্পতিবার স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিলটি পাসের প্রস্তাব সংসদে তোলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। বিল পাসের আগে জনমত যাচাই ও সংশোধনী প্রস্তাবের বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করেন স্পিকার। পরে তা কণ্ঠভোটে দিলে পাস হয়।

প্রশাসক নিয়োগের এই বিধানের বিরোধিতা করে সংসদ কার্যক্রম থেকে ওয়াকআউট করেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ।

বিদ্যমান আইনের ৪২(১) ধারায় বলা হয়েছে, কোনো শহর এলাকাকে পৌর এলাকা ঘোষণার পর পৌরসভার কার্যাবলী সম্পাদনের জন্য সরকার একজন উপযুক্ত কর্মকর্তাকে প্রশাসক নিয়োগ করবে এবং পৌরসভা গঠন না হওয়া পর্যন্ত উক্ত প্রশাসক প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রস্তাবিত আইনে এই ধারায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। বলা হয়েছে, পৌরসভার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর নতুন পরিষদ গঠনের আগ পর্যন্ত কাজ চালানোর জন্য প্রশাসক নিয়োগ দেবে সরকার। সরকারি কোনো কর্মকর্তা বা সরকার উপযুক্ত মনে করে এমন কোনো ব্যক্তিকে প্রশাসক নিয়োগ দেবে।

বিলে পৌরসভার সচিবের পদের নাম বদলে `পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা' করা হয়েছে।

বিলে পৌরসভা পরিষদের বাতিল সংক্রান্ত ধারায় নতুন বিধান যুক্ত করার প্রস্তাব করা হয়েছে। বলা হয়েছে, যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একাধিক্রমে ১২ মাস বেতন বকেয়া থাকলে পরিষদ বাতিল হবে। নতুন পৌরসভা গঠন হলে বা কোনো ইউনিয়নের অংশবিশেষ পৌরসভার অন্তর্ভুক্ত হলে বিলুপ্ত ইউনিয়ন বা বিলুপ্ত অংশে কর্মরতদের পৌরসভায় অন্তর্ভুক্তির বিধান বিলে রাখা হয়েছে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্পর্কে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, `জনসংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি উন্নত জীবন ও পর্যাপ্ত নাগরিক সেবার প্রত্যাশায় অধিক সংখ্যক মানুষ শহরমুখী হচ্ছে। একইসঙ্গে শহর এলাকার মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। নতুন নতুন অনেক পৌরসভা গঠিত হওয়ার পর দেখা যায় যে, পৌরসভার নাগরিক সেবা প্রদান এবং নিজস্ব প্রশাসন পরিচালনার সক্ষমতা থাকে না। সুশাসন নিশ্চিত ও পর্যাপ্ত সেবা প্রদানের শহরগুলোকে বাসযোগ্য করতে শহর গঠনে জনসংখ্যার ঘনত্বের মান পরিবর্তন প্রয়োজন।'

আইনে পৌরসভাসমূহের মেয়াদ পাঁচ বছর শেষ হওয়া সত্ত্বেও নতুন পরিষদ প্রথম সভায় মিলিত না হওয়া পর্যন্ত পূর্বের পরিষদ দায়িত্ব পালন করতে পারে। অনেক সময় পৌরসভার মেয়াদ শেষ হলেও বিভিন্ন কারণে রিট বা অন্য কোনো মামলা করে মেয়াদোত্তীর্ণ পরিষদ অনির্ধারিত সময়ের জন্য পৌর প্রশাসন পরিচালনা করে। ফলে আইনের এ শর্তটি সংশোধনক্রমে মেয়াদোত্তীর্ণ পৌরসভার ক্ষেত্রে নতুন পরিষদ গঠন না হওয়া পর্যন্ত প্রশাসক নিয়োগ করা প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

দেখুন:

আরো সংবাদ


premium cement
সৌদি আরবে আরো ৩ বাংলাদেশী হজযাত্রীর মৃত্যু চট্টগ্রামে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে জামায়াতের গৃহ ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ তাহিরপুরে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও বন্যার্তদের মধ্যে ভারতীয় হাইকমিশনের ত্রাণ বিতরণ কওমি মাদরাসা নিয়ে ফখরুল ইমাম এমপির বক্তব্যের প্রতিবাদ শিবিরের ফুলগাজীতে বিএনপির ত্রাণ বিতরণের প্রস্তুতি সভায় আ’লীগের হামলায় আহত ৩০ চট্টগ্রামে ৫০ চোরাই মোবাইলসহ পাকড়াও ৪ চোর হামলার ভয়ে বড়থলির ২৩টি পরিবার বান্দরবানে আশ্রয় নিয়েছে হবিগঞ্জে মোবাইল কেনাবেচা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১ চট্টগ্রামে গরুর বাজার দখলের চেষ্টা অস্ত্রসহ ৩ ছাত্রলীগ ক্যাডার গ্রেফতার বগুড়ায় আবাসিক হোটেলে অসামাজিক কাজ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ডিএসসিসি পশুর হাটে থাকবে ১১ ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম

সকল