১৩ আগস্ট ২০২২
`

কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক হত্যায় ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি বিএফইউজের

কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক হত্যায় ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি বিএফইউজের - প্রতীকী ছবি

কুষ্টিয়ায় নিখোঁজের পাঁচ দিন পর সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রুবেলের (৩১) লাশ উদ্ধারের সংবাদে গভীর উদ্বেগ, তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে রুবেলের ঘাতকদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

বৃহস্পতিবার বিএফইউজে সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নূরুল আমিন রোকন এক যৌথ বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, নিহত রুবেল কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, স্থানীয় দৈনিক কুষ্টিয়ার খবর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি ছিলেন। তিনি কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং-এর এ ব্লক এলাকার মরহুম হাবিবুর রহমানের ছেলে।

বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘বর্তমান সরকারের আমলে দেশে গুম-খুনের যে সংস্কৃতি চলছে তার সর্বশেষ শিকার সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রুবেল। গত এক যুগে এ নিয়ে ৪৫ জন সাংবাদিক হত্যার শিকার হয়েছেন।’

নেতৃবৃন্দ অনতিবিলম্বে রুবেল হত্যার রহস্য উন্মোচন করে ঘাতকদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

পৃথক বিবৃতিতে কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুর রাজ্জাক বাচ্চু ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মুকুল সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রুবেল হত্যায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তি দাবি করেন।

জানা গেছে, গত পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন রুবেল। ৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের সিঙ্গার মোড়ে তার পত্রিকা অফিসে অবস্থান করছিলেন। এ সময় মোবাইলে একটি কল এলে তিনি অফিস পিয়নকে ‘বাইরে থেকে আসছি’ বলে বের হন। এরপর থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। পরে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় জিডি করে তার পরিবার। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রা গ্রামের নতুন ব্রিজের নিচে নদীতে তার লাশ ভেসে ওঠে। পরনের জামা-কাপড় ও মানিব্যাগে থাকা পরিচয়পত্র দেখে তাকে শনাক্ত করা হয়।


আরো সংবাদ


premium cement