০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

রাজনীতি থেকে দূরেই থাকবে পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনী

ওয়াশিংটনে দূতাবাসের অনুষ্ঠানে সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া
কামার জাভেদ বাজওয়া -

পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া বলেছেন, রাজনীতি থেকে দূরেই থাকবে দেশের সশস্ত্র বাহিনী। এ বিষয়ে জাতিকে আশ্বস্ত করে তিনি বলেছেন, সশস্ত্র বাহিনী রাজনীতি থেকে নিজেদের দূরে সরিয়ে রেখেছে এবং ভবিষ্যতেও দূরেই থাকতে চায়। গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির পাকিস্তান দূতাবাসে এক মধ্যাহ্নভোজের অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
মধ্যাহ্নভোজের অনুষ্ঠানে জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া আগামী দুই মাসের মধ্যে নিজের দ্বিতীয় দফার তিন বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর চলে যাওয়ার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন এবং জানান, তিনি আগে যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা তিনি রক্ষা করবেন। পাকিস্তান দূতাবাসে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে যারা উপস্থিত ছিলেন- তাদের বরাত দিয়ে দ্য ডন জানিয়েছে, জেনারেল বাজওয়া মধ্যাহ্নভোজের আগে সেখানে ঘরোয়া সমাবেশে ভাষণ দেন এবং পরে নিজের অতিথিদের সাথে কথা বলার সময় অনানুষ্ঠানিক মন্তব্যও করেন।
বাজওয়া সেখানে বলেন, পাকিস্তানের রুগ্ন অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করার কাজটি সমাজের সব অংশের প্রথম অগ্রাধিকার হওয়া উচিত। তিনি আরো বলেন, শক্তিশালী অর্থনীতি ছাড়া জাতি তার লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে সক্ষম হবে না। পাকিস্তানি কূটনীতিকদের একটি বিশালসংখ্যক দর্শকদের উদ্দেশে দেয়া নিজের ভাষণে বাজওয়া বলেন, ‘একটি শক্তিশালী অর্থনীতি ছাড়া কূটনৈতিক কোনো কর্মকাণ্ডও সুষ্ঠুভাবে চলতে পারে না।’
মধ্যাহ্নভোজের পর জেনারেল বাজওয়া মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিনের সাথে বৈঠকের জন্য পেন্টাগনে যান বলেও জানিয়েছে দ্য ডন। পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর ইন্টার সার্ভিস পাবলিক রিলেশনস (আইএসপিআর) জানিয়েছে, মার্কিন প্রতিরক্ষান্ত্রী অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল লয়েড জেমস অস্টিন, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাকব জেরেমিয়া সুলিভান এবং ডেপুটি সেক্রেটারি অব স্টেট ওয়েন্ডি রুথ শেরম্যানের সাথে গত মঙ্গলবার সাক্ষাৎ করেছেন জেনারেল বাজওয়া।
বৈঠকে পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়, আঞ্চলিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়। এ সময় পাকিস্তানের সেনাপ্রধান মার্কিন কর্মকর্তাদের তাদের সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানান। একই সাথে পাকিস্তানে বন্যা দুর্গতদের উদ্ধার/পুনর্বাসনের জন্য ইসলামাবাদের বৈশ্বিক অংশীদারদের সহায়তা গুরুত্বপূর্ণ হবে বলেও পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি।
সংবাদমাধ্যম বলছে, বন্যা ত্রাণ ও মানবিক সহায়তার হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র চলতি বছর পাকিস্তানকে ৫৬.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা দিয়েছে। এ ছাড়া পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির সাথে বৈঠকের সময় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বিপর্যয়কর বন্যার কারণে পাকিস্তানজুড়ে ধ্বংসযজ্ঞ ও প্রাণহানির জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন।


আরো সংবাদ


premium cement