১৩ আগস্ট ২০২২
`

শ্রীলঙ্কায় পেট্রলের মজুদ শেষের পথে, জ্বালানিমন্ত্রীর সতর্কবার্তা

আবারো এক সপ্তাহের জন্য স্কুল বন্ধ
কলম্বোর একটি পাম্পে জ্বালানি নেয়ার জন্য অটোরিকশা চালকদের দীর্ঘ লাইন : এএফপি -

শ্রীলঙ্কার জ্বালানির মজুদ নিয়ে কঠোর সতর্কতা জানিয়েছেন দেশটির জ্বালানিমন্ত্রী। এ মুহূর্তে দেশটি ৭০ বছরের বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সঙ্কটের মোকাবেলা করছে। স্থানীয় সময় গত রোববার শ্রীলঙ্কার জ্বালানিমন্ত্রী কাঞ্চনা উইজেসেকেরা বলেছেন, নিয়মিত চাহিদার হিসাবে, দেশটিতে এক দিনেরও কম পেট্রল অবশিষ্ট রয়েছে। জ্বালানিমন্ত্রী আরো বলেছেন, দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে শ্রীলঙ্কায় পরবর্তী পেট্রল চালান আসছে না।
জ্বালানি, খাদ্য ও ওষুধের মতো পণ্য আমদানির জন্য অর্থ জোগাড় করতে হিমশিম খাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত সপ্তাহে শ্রীলঙ্কা জরুরি প্রয়োজনীয় নয়, এমন যানবাহনের জন্য পেট্রল ও ডিজেলের বিক্রয় স্থগিত করেছে। উইজেসেকেরা সাংবাদিকদের বলেছেন, তার দেশে ১২ হাজার ৭৭৪ টন ডিজেল এবং চার হাজার ৬১ টন পেট্রল মজুদ রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, ‘পেট্রলের পরবর্তী চালানটি ২২ ও ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে’। এ সপ্তাহান্তে ডিজেলের একটি চালান আসবে বলে আশা করছে শ্রীলঙ্কা। তবে, উইজেসেকেরা সতর্ক করেছেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী জ্বালানি ও অপরিশোধিত তেল আমদানির জন্য দেশটির কাছে পর্যাপ্ত অর্থ নেই।
উইজেসেকেরা বলেছেন, শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংক জ্বালানি ক্রয়ের জন্য মাত্র ১২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সরবরাহ করতে পারবে, যা নির্ধারিত চালানের জন্য প্রয়োজনীয় ৫৮৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের চেয়ে অনেক কম। এ ছাড়া তিনি জানান, এ বছরের শুরুতে কেনা জ্বালানির মূল্য বাবদ দেশটি সাত সরবরাহকারীর কাছে ৮০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেনা রয়েছে। শ্রীলঙ্কা আগামী সপ্তাহ পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ির জন্য জ্বালানি বিক্রি নিষিদ্ধ করার পরে এসব তথ্য জানালেন দেশটির জ্বালানিমন্ত্রী।
এ দিকে সঙ্কটের মধ্যেই আবারো দেশজুড়ে সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছে দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটি। মূলত এক সপ্তাহের জন্য স্কুলে ছুটি ঘোষণা করেছে দেশটি। অভূতপূর্ব জ্বালানি সঙ্কটের মধ্যেই দেশের সব সরকারি ও রাষ্ট্র-অনুমোদিত বেসরকারি স্কুলে এক সপ্তাহ ছুটি ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা। ৪ জুলাই থেকেই এই ছুটি শুরু হয়েছে। তবে শর্তসাপেক্ষে কিছু এলাকার স্কুল খোলা থাকবে।
শ্রীলঙ্কার শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন আগামীতে ছুটির দিনে স্কুলের সিলেবাস শেষ হবে। গত ১৮ জুনও শ্রীলঙ্কার সরকার এক সপ্তাহের জন্য স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছিল। দেশটির শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঘোষণা অনুযায়ী ‘দীর্ঘমেয়াদি বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে কলম্বো শহরের সব সরকারি ও সরকার অনুমোদিত বেসরকারি স্কুলগুলো এবং অন্য প্রদেশের বড় বড় শহরের স্কুলগুলো আগামী সপ্তাহে বন্ধ থাকবে।’

 


আরো সংবাদ


premium cement