১৮ মে ২০২২, ০৪ জৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩
`

তালেবানের ৩ হাজার সদস্য বরখাস্ত


গত বছর আফগানিস্তানে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই নিজ সদস্যদের কর্মকাণ্ডের ওপর নজর রাখছিল তালেবান। তাদের অনেকের অপরাধমূলক কাজের সাথে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। এ নিয়ে যাচাই-বাছাই শেষে প্রায় তিন হাজার সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। গত শনিবার তালেবান সরকারের এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন।

এখন পর্যন্ত দুই হাজার ৮৪০ জনকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে এএফপিকে জানান আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্যানেলপ্রধান লতিফুল্লাহ হাকিমি। তিনি বলেন, ‘তারা ইসলামিক আমিরাতের বদনাম করছিল। যাচাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের সরিয়ে দেয়া হয়েছে, যাতে আমরা ভবিষ্যতে পরিচ্ছন্ন একটি সেনা ও পুলিশ বাহিনী গড়ে তুলতে পারি।’

মেয়েদের স্কুলে ফেরানোর প্রতিশ্রুতি
আফগানিস্তানের তালেবান সরকারের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, আগামী মার্চের শেষ দিকে তারা মেয়েদের জন্য সব স্কুল খুলে দিতে সক্ষম হবেন। মার্কিন এপি-কে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন জাবিউল্লাহ।
প্রথমবার স্কুল খোলার সময় জানাল তালেবান। গত আগস্টের মাঝামাঝিতে তালেবান আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণে নেয়ার পর দেশটিতে সপ্তম শ্রেণীর ঊর্ধ্ব মেয়েরা স্কুলে ফিরতে পারেনি।

তালেবান সরকারের সংস্কৃতি ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী জাবিউল্লাহ বলেন, তাদের শিক্ষা বিভাগগুলো নতুন বছর (২১ মার্চ) থেকে সব মেয়েদের জন্য ক্লাস খোলার চেষ্টা করবে। তিনি বলেন, স্কুলে ছেলে ও মেয়েদের অবশ্যই আলাদা বসার ব্যবস্থা করা উচিত। কিন্তু বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে যে, আমরা পর্যাপ্ত ভবন এবং হোস্টেল পাচ্ছি না, যেখানে মেয়েরা অবস্থান করতে পারবে। জনবহুল এলাকায় ছেলে ও মেয়েদের জন্য শুধু পৃথক ক্লাস রুমের ব্যবস্থা করলেই হবে না।

আলাদা ভবনেরও প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তালেবান শিক্ষার বিরুদ্ধে নয় উল্লেখ করে জাবিউল্লাহ বলেন, একসময় কাবুলে মার্বেলের মেঝে করা ভবন আফগান অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় হিসেবে ব্যবহৃত হতো; কিন্তু এখন আমরা সংস্কৃতি ও তথ্য মন্ত্রণালয় খুলেছি।


আরো সংবাদ


premium cement