১৯ জানুয়ারি ২০২২
`

কারো অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না আফগানিস্তান

প্রধানমন্ত্রী ও তালেবানের সহপ্রতিষ্ঠাতা মোল্লা আখুন্দের ঘোষণা স্বনির্ভর বিমানবাহিনী গড়ে তুলবে তালেবান সরকার
মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ -

বিশ্বের কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে আফগানিস্তান হস্তক্ষেপ করবে না বলে জানিয়েছেন দেশটির অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও তালেবানের সহপ্রতিষ্ঠাতা মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ। গত শনিবার এক অডিও বার্তায় তিনি এ কথা জানান। হাসান আখুন্দের অডিও বার্তাটি আফগানিস্তানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হয়। কাবুলের ক্ষমতা দখল এবং সেপ্টেম্বরের শুরুতে সরকার গঠনের পর তালেবান প্রধানমন্ত্রীর অডিও বার্তা এটিই প্রথম।
শনিবারের এই অডিও বার্তায় যুদ্ধবিধ্বস্ত এই দেশটিতে সহায়তা দিতেও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। আর তাই আগামী সপ্তাহে কাতারের রাজধানী দোহায় যুক্তরাষ্ট্র-তালেবানের মধ্যকার নির্ধারিত বৈঠকের আগে আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধানের এই বক্তব্যকে বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।
প্রায় ৩০ মিনিটের এই অডিও বার্তায় মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ বলেন, ‘আমরা সব দেশকে এই নিশ্চিয়তা দিচ্ছি যে- আমরা কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করব না এবং সবার সাথেই আমরা ভালো সম্পর্ক চাই।’ আফগান জনগণকে উদ্দেশ করে হাসান আখুন্দ বলেন, ‘আফগানিস্তানের বেকারত্ব ও খারাপ অর্থনৈতিক অবস্থার জন্য তালেবান দায়ী নয় বরং দেশে বিদ্যমান সব সমস্যাই সাবেক সরকারের রেখে যাওয়া দায়।’
পাশতু ভাষায় দেয়া ওই ভাষণে তিনি বলেন, তালেবান তাদের প্রতিশ্রুতি পুরোপুরি বাস্তবায়ন করেছে; কাজেই জনগণের উচিত তালেবান সরকারের প্রতি সমর্থন ঘোষণা করা। দেশের অর্থনৈতিক দুর্দশার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, তালেবান সরকার জনগণের ‘রিজিকের’ সংস্থান করছে না বরং রিজিক আসছে আল্লাহর পক্ষ থেকে। আল্লাহ তার বান্দাদের পরীক্ষা নিচ্ছেন।
তালেবান প্রধানমন্ত্রী বলেন, অতীতে দেশে এতটা নিরাপত্তাহীনতা ছিল যে, দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা মানুষকে নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে থাকতে হতো; কিন্তু এখন সারা দেশে পরিপূর্ণ নিরাপত্তা বিরাজ করছে। তিনি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ইসলামী শাসনব্যবস্থা রক্ষা করার জন্য তালেবান সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান এবং আফগানিস্তানের জন্য একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গঠন করার লক্ষ্যে কাজ করার নির্দেশ দেন।
এ দিকে আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোল্লা মোহাম্মদ ইয়াকুব বলেছেন, তারা পুরোপুরি স্বাধীন ও স্বনির্ভর একটি বিমানবাহিনী গঠনে কাজ করছেন। কোনো দেশ বা গোষ্ঠীর সমর্থনের ওপর এটি নির্ভর করবে না। শুক্রবার কাবুল বিমানবন্দরের কর্মীদের সাথে এক বৈঠকে এই মন্তব্য করেন তিনি।
মোল্লা মোহাম্মদ ইয়াকুব বলেন, নতুন এই বিমানবাহিনীর জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও আঞ্চলিক দেশগুলোর সমর্থনের প্রয়োজন হবে না। এমনকি ভারত, পাকিস্তান, উজবেকিস্তান ও তাজিকিস্তানের সহযোগিতারও প্রয়োজন হবে না। এর আগে ইসলামিক আমিরাতের কর্মকর্তারা বলেছিলেন, তারা এক লাখ সদস্যের সমন্বয়ে একটি সেনাবাহিনী গঠন করবেন। গত মাসে পাকিস্তান সফরের সময় দেশটির ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি বলেছিলেন, তাদের ছোট কিন্তু প্রশিক্ষিত একটি সেনাবাহিনী দরকার।
ইরানে রফতানি ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি
আফগানিস্তানের চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট (এসিসিআই) শনিবার জানিয়েছে, চলতি বছর ইরানে আফগানিস্তানের রফতানি ১৭ মিলিয়র ডলারে পৌঁছেছে, যা গত বছরের তুলনায় ৫০ শতাংশ বেশি। টোলো নিউজের খবর। এসিসিআইয়ের প্রধান মোহাম্মদ ইউনেস মোমান্দ বলছেন, আমরা ৩০ থেকে ৩৫ বছর ধরে ইরানে পণ্য রফতানি করছি। তবে ইরান এখনো কিছু গুরুত্বপূর্ণ পণ্য আমদানি করে না। দেশটি আফগান পণ্যের ওপর উচ্চ শুল্ক আরোপ করেছে। আমরা ইরানকে অন্যান্য দেশের মতো অগ্রাধিকারমূলক শুল্ক দিতে বলেছি। হেরাত চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের কর্মকর্তারা বলছেন, ইরানে আফগানিস্তানের রফতানির বেশির ভাগই শুকনো ফল, কৃষি পণ্য ও কয়লা। কর্মকর্তারা বলছেন, তারা ইরানে রফতানির হার বাড়াতে কাজ করে যাচ্ছেন।


আরো সংবাদ


premium cement