০৮ মে ২০২১
`

পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চম দফার ভোটেও বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ

কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ফের গুলি চালানোর অভিযোগ; বিকেল পর্যন্ত ছয় জেলায় ভোট পড়েছে ৭৮.৩৬ শতাংশ
-

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনে গতকাল শনিবার পঞ্চম দফার ভোট গ্রহণ শান্তিপূর্ণভাবে শুরু হলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্তভাবে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বেশ কিছু জায়গায় গণ্ডগোল পরিস্থিতিতেই ভোট গ্রহণ চলছে কেন্দ্রগুলোতে। সকাল থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত রাজ্যে ৭৮.৩৬ শতাংশ ভোট পড়েছে।
এ দিকে আবারো কেন্দ্রীয় বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক উঠেছে। চতুর্থ দফার পর বাংলায় পঞ্চম দফার ভোটেও গুলির চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে। শীতলকুচির পর এবার উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গায় গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। শূন্যে গুলি চালানো হয়েছে বলে দাবি গ্রামবাসীদের একাংশের। এই ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর নেই। যদিও গুলি চালানোর অভিযোগ ব্যাখ্যা করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।
দেগঙ্গা বিধানসভার চাকলা পঞ্চায়েতের কুরুলগাছা গ্রামে ২১৪ ও ২১৫ নম্বর বুথে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় রিপোর্ট তলব করেছে কমিশনের। ঘটনার ভিডিও ফুটজ চেয়ে পাঠিয়েছে কমিশন। মিডিয়া মনিটরিংয়ের মাধ্যমে জানতে পারার পরেই রিপোর্ট তলব করা হয়েছে। এ দিন দেগঙ্গায় ৮১ নম্বর বুথেও উত্তেজনা ছড়ায়। সোহাইস্বেতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে ভোটারদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে।
শনিবার দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, নদিয়া, উত্তর ২৪ পরগনা এবং পূর্ব বর্ধমান, এই ছয় জেলার ৪৫টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। এর মধ্যে সল্টলেকের শান্তিনগরে বুথের বাইরে অবৈধ জমায়েত ঘিরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। এ ছাড়াও বিভিন্ন জেলা থেকে বিক্ষিপ্ত গোলমালের খবর পাওয়া গেছে। সেই তুলনায় পাহাড়ের পরিস্থিতি একেবারেই শান্তিপূর্ণ।
৫টা পর্যন্ত দার্জিলিংয়ে ভোট পড়েছে ৭৪.৬০ শতাংশ। জলপাইগুড়ি এবং কালিম্পংয়ে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত যথাক্রমে ৮১.৭১ এবং ৬৯.৫৬ শতাংশ ভোট পড়েছে। নদিয়ায় সকাল থেকে ৫টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৮১.৫০ শতাংশ। উত্তর ২৪ পরগনায় ৭৫.১৪ শতাংশ ভোট পড়েছে। পূর্ব বর্ধমানে ৮১.৬৭ শতাংশ ভোট পড়েছে।



আরো সংবাদ