২৩ জানুয়ারি ২০২১
`

সৌদি-কাতার বিরোধ নিষ্পত্তির পথে

প্রাথমিক চুক্তি শুধু দুই দেশের মধ্যে হবে
-

হোয়াইট হাউজ ছেড়ে যাওয়ার আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প আরো একটা বড় সাফল্য পেতে চান। মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্কট মেটানোর নতুন নীতি নিয়েছেন তিনি। ট্রাম্পের উদ্যোগে সৌদি আরব ও কাতারের মধ্যে একটি প্রাথমিক চুক্তি হতে পারে। ট্রাম্প হোয়াইট হাউজ ছেড়ে যাচ্ছেন আগামী ২০ জানুয়ারি। মূলত এর আগে যাতে চুক্তিটি হয়ে যায়, তার জন্য ঝাঁপিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।
ট্রাম্পের পরামর্শদাতা কুশনার এখন মধ্যপ্রাচ্যে। তিনি গত সপ্তাহে রিয়াদে সৌদির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সাথে দেখা করেছেন। গত বুধবার তিনি কাতারের আমির শেখ তামিম বিল হামাদ আলে সানির সাথেও আলোচনা করেন। তারপর তিনি কাতার ছেড়ে চলে গেছেন।
বুধবার ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল এক মার্কিন কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, আলোচনার প্রধান বিষয় ছিল বিরোধ মেটানো এবং কাতারের বিমান যাতে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ওপর দিয়ে যেতে পারে, তার ব্যবস্থা করা।
ব্লুমবার্গের রিপোর্টে বলা হয়, প্রাথমিক চুক্তি শুধু সৌদি আরব ও কাতারের মধ্যে হবে। আমিরাত, বাহরাইন ও মিসর তাতে থাকবে না। এই চার দেশ মিলে কাতারের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। ২০১৭-তে কাতারের সাথে তারা কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে দেয়। বিমান ও নৌপথ ব্যবহারেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। চার দেশের অভিযোগ ছিল, কাতার সন্ত্রাসবাদকে মদদ দিচ্ছে এবং ইরানের সাথে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রাখছে। কাতার অবশ্য এই সব অভিযোগ খারিজ করে আলোচনায় বসতে চেয়েছে। এই চার দেশ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার জন্য ১৩ দফা দাবি পেশ করেছে। যার মধ্যে আলজাজিরা নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দেয়ার দাবিও আছে। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের রিপোর্ট হলো, চার দেশ নিষেধাজ্ঞা তোলার শর্ত কিছুটা শিথিল করেছে। তারা এখন সঙ্কট কাটানোর জন্য আগের তুলনায় অনেক বেশি নমনীয়।
লন্ডনের কিংস কলেজের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসার অ্যান্ড্রিয়াস ক্রিগ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সৌদি আরব ও কাতার যে প্রাথমিক চুক্তি করতে পারে, এটা খুবই ভালো খবর। তবে বিরোধ মিটতে কয়েক বছর সময় লেগে যেতে পারে। চুক্তির ঘোষণা হলে বোঝা যাবে, দুই দেশের নেতারা আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য কী পদক্ষেপ নিচ্ছেন। বিরোধ মেটাতে তারা কতটা আগ্রহী।
মঙ্গলবার জাতিসঙ্ঘে নিযুক্ত সৌদি আরবের স্থায়ী প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ বিন ইয়াহিয়া আল-মুয়াল্লিমি বলেছেন, কাতার যদি তাদের আগের অবস্থান থেকে সরে আসে, সন্ত্রাসবাদকে সহযোগিতা বন্ধ করে, চরমপন্থী সংবাদমাধ্যমকে অনুদান থামায় এবং অপর আরব দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ বন্ধ করে, তাহলে কাতার ও উপসাগরীয় দেশের সম্পর্ক কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ভালো অবস্থানে যেতে পারে।



আরো সংবাদ


পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত বিশ্বের প্রতি বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত ওবায়দুল কাদেরকে কটূক্তি, কাল কোম্পানীগঞ্জে হরতাল রূপান্তরিত করোনা আরো প্রাণঘাতী হতে পারে : যুক্তরাজ্যের প্রধান বিজ্ঞানী শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকবে দেশের ৩ অঞ্চলে গৃহহীন ৬৬ হাজার পরিবারকে ঘর দিলেন প্রধানমন্ত্রী মডার্নার টিকার খুব একটা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি : জরিপ স্বপ্নের ঠিকানা পাচ্ছেন ৫৫ পরিবার তার মৃত্যুতে কষ্ট পেয়েছে আল-আকসার পশু-পাখিরাও আশুগঞ্জে চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ছোট ভাইকে হত্যা সিনেটে ট্রাম্পের বিচার শুরু হবে ফেব্রুয়ারিতে কুয়াশা কেটে যাওয়ার পর শাহজালালে ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক

সকল