২০ জানুয়ারি ২০২১
`

ইথিওপিয়ায় যুদ্ধাপরাধের আশঙ্কা জাতিসঙ্ঘের

-

উত্তরাঞ্চলীয় তিগ্রাই অঞ্চলের রাজধানী মেকেল্লেতে ইথিওপিয়ার সেনাবাহিনীর অভিযানের হুমকি দেয়ার পর সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধের আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসঙ্ঘ। সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার বলেছেন শহরটির আশপাশে ট্যাংক ও গোলাবারুদ মোতায়েনের খবর উদ্বেগজনক।
গত দুই সপ্তাহ ধরে ইথিওপিয়ার সরকারি বাহিনী ও তিগ্রাই পিপলস লিবারেশন ফ্রন্ট পার্টির (টিপিএলএফ) মধ্যে লড়াই চলছে। ইতোমধ্যে এই লড়াইয়ে এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ছাড়া অঞ্চলটি থেকে পালিয়ে প্রতিবেশী দেশ সুদানে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছে হাজার হাজার মানুষ। গত রোববার রাতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী আবি আহমদ টিপিএলএফ বাহিনীকে আত্মসমর্পণ করতে তিন দিনের সময় বেঁধে দেন। তবে আত্মসমর্পণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন গোষ্ঠীটির নেতা ডেবরেটসিয়ন গেবরেমাইকেল। জবাবে এই নেতা বলেন, তাদের জনগণ মাতৃভূমি রক্ষায় জীবন দিতে প্রস্তুত।
আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হস্তক্ষেপ চায় না
ইথিওপিয়া সরকার তার দেশের তিগ্রাই সমস্যা নিয়ে আপাতত আন্তর্জাতিক সহায়তা চায় না। দেশটির প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ দেশটির অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে দূরে থাকতে বলছেন। তিনি বলেছেন, তাইগ্রে সমস্যা নিয়ে ইথিওপিয়ার পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে আবেদন না জানানো পর্যন্ত তারা যেন অপেক্ষারত (স্ট্যান্ডবাই) থাকে। ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাইগ্রে নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগকে তার দেশ প্রশংসা করে। দেশটির প্রধানমন্ত্রীর দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ইথিওপিয়া তার আইন ও আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতা অনুসারে এই পরিস্থিতি সমাধান করতে খুব সক্ষম এবং করতে ইচ্ছুকও।’



আরো সংবাদ