২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

হিরোশিমা দিবসে উগ্র জাতীয়তাবাদ বর্জনের ডাক

আণবিক বোমা হামলার ৭৫তম বার্ষিকী
আণবিক বোমা হামলায় হতাহতদের স্মরণে হিরোশিমার পীস মেমোরিয়াল পার্কে ফুল দিচ্ছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে : এএফপি -

হিরোশিমা দিবসের ৭৫তম বার্ষিকীতে জাপানের পক্ষ থেকে উগ্র জাতীয়তাবাদ বর্জনের ডাক দেয়া হয়েছে। পারমাণবিক অস্ত্র কিংবা কোভিড-১৯ এর মতো মানুষ-সৃষ্ট ও প্রাকৃতির দুর্যোগের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী মানুষের সম্মিলিত লড়াইয়ের ওপর জোর দিয়েছেন হিরোশিমার মেয়র কাজুমি মাতসুই ও প্রধানমন্ত্রী শিনজে আবে।
১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট জাপানের হিরোশিমা শহরে পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম পারমাণবিক বোমা হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। ওই পারমাণবিক বোমার বিস্ফোরণে তাৎক্ষণিকভাবে প্রায় দেড় লাখ মানুষ নিহত হন। তখনো ঘুমের মধ্যেই ছিলেন বেশির ভাগ মানুষ। মাটির সাথে মিশে যায় বেশির ভাগ স্থাপনা। ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয় একটি নগরী। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় বছর শেষে আরো ৬০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়।
নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনটি স্মরণ করেছে জাপান। সেই হামলা থেকে বেঁচে যাওয়াদের পাশাপাশি হামলায় নিহতদের আত্মীয়স্বজন ও বিদেশী প্রতিনিধিরা এসব আয়োজনে অংশগ্রহণ করেছেন। নিহতদের পরকালীন শান্তি কামনা করার পাশাপাশি বিশ্বশান্তির ডাক দিয়েছেন তারা। তবে করোনার কারণে এবার হিরোশিমা দিবসে হিরোশিমার পিস মেমোরিয়াল পার্কে জনসমাগমে অনুমতি দেয়া হয়নি। দিবসের সব আয়োজন অনলাইনে সম্প্রচার করা হয়েছে। আর অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন তাদের সবাই ছিলেন মাস্ক পরিহিত।
দিবসটি উপলক্ষে হিরোশিমার মেয়র কাজুমি মাতসুই উগ্র জাতীয়তাবাদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। তার মতে, এই উগ্র জাতীয়তাবাদই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণ। এই ধরনের পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মাতসুই। তিনি বলেছেন, ‘এমন দুঃসহ অতীতের পুনরাবৃত্তি আমরা হতে দিতে পারি না। সভ্য সমাজকে অবশ্যই আত্মকেন্দ্রিক জাতীয়তাবাদ পরিত্যাগ করতে হবে এবং সব হুমকির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’
মাতসুই বলেছেন, হিরোশিমা আামদের নাগরিক সমাজের কাছে বিশ্ব শান্তি অব্যাহত রাখা ও পারমাণবিক অস্ত্র বিলোপকে সম্ভব করে তোলার তাগিদ হাজির করে। জাপানি প্রধানমন্ত্রী শিনজে আবে তার বিবৃতিতে বলেছেন, প্রত্যেক দেশেরই উচিত পারস্পরিক সহযোগিতা ও সংলাপের মধ্য দিয়ে নিজেদের মধ্যকার অবিশ্বাস দূর করা।
সেই ১৯৪৫ সাল। জাপানের হিরোশিমা শহরে স্থানীয় সময় তখন সকাল ৮টা ১৫ মিনিট। আগেই নির্দেশনা দিয়েছিলেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট হ্যারি ট্রুম্যান। মার্কিন বি-টুয়েন্টি নাইন বোমারু বিমান এনোলা গে থেকে হিরোশিমায় ফেলা হয় আণবিক বোমা ‘লিটল বয়’। বোমাটি প্রায় ৫০০ মিটার উঁচুতে বিস্ফোরিত হয়।
হিরোশিমার ঘটনার তিন দিন পর ৯ আগস্ট নাগাসাকি শহরে ফ্যাটম্যান নামে আরকেটি পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করা হয়। তাতে প্রায় ৭৪ হাজার মানুষ নিহত হন। তবে জাপানের আসাহি শিমবুনের এক হিসাবে বলা হয়েছে, বোমার প্রতিক্রিয়ায় সৃষ্ট রোগগুলোর কারণে দুই শহরে চার লাখের মতো মানুষ মারা যান। এদের বেশির ভাগই ছিলেন বেসামরিক নাগরিক।
আণবিক বোমা হামলার এত বছর পরও শহর দু’টিতে জন্ম নিচ্ছে বিকলাঙ্গ শিশু। ক্যান্সারসহ দুরারোগ্য রোগে ভুগছে বহু মানুষ। দিবসটি পালনে জাপান সরকার ও বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।


আরো সংবাদ

ক্রিকেট ছেড়ে সাকিব এখন পাইকারি আড়তদার! (১৩১৮৮)যে কারণে এই মুহূর্তেই এ সরকারের পতন চান না নুর (১১৯৬৯)নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে ধরা পড়ল দৈত্যাকার ইঁদুর! (ভিডিও) (১০৪৩০)এমসি কলেজে গণধর্ষণ : আ’লীগ নেতারা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন! (৯৭৬৫)নতুন বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সামনে আনলো ইরান (৮০৭০)সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ ছাত্রলীগ কর্মীদের (৭৮৪১)এমসি কলেজে ‘গণধর্ষণ’ : ছাত্রদের ছাত্রাবাস ছাড়ার নির্দেশ (৬৯৭৩)সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ ছাত্রলীগ কর্মীদের (৬৪৯৫)পাবনা উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন (৫৯৩২)ডোপ টেস্টে পজেটিভ ২৬ পুলিশকে চাকরিচ্যুত করা হবে : ডিএমপি কমিশনার (৫৬২৬)