১১ জুলাই ২০২০

দূতাবাস কর্মকর্তা বহিষ্কার ঘিরে পাক-ভারত উত্তেজনা

-

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনে নয়াদিল্লিতে অবস্থিত পাকিস্তান দূতাবাসের অন্তত দুই কর্মকর্তাকে বহিষ্কার করেছে ভারত। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে পাকিস্তান। দূতাবাস কর্মকর্তা বহিষ্কার এবং রাষ্ট্রদূত তলবের এই ঘটনা ঘিরে চিরবৈরী এ দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।
পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত রোববার ভারতীয় আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা নয়াদিল্লিতে পাকিস্তানি দূতাবাসের দুই কর্মকর্তাকে আটক করে। কূটনৈতিক মিশনের সদস্য হিসেবে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত থাকার দায়ে ওই দুই কর্মকর্তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে ভারত। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পাকিস্তানি এ দুই কর্মকর্তাকে নয়াদিল্লি ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ দিকে দূতাবাস কর্মকর্তাদের বহিষ্কারের ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নয়াদিল্লিতে পাকিস্তান হাইকমিশনের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে গত রোববার তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে হাইকমিশনের মধ্যস্থতায় কর্মকর্তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। মিথ্যা অভিযোগে দূতাবাস কর্মকর্তাদের আটক এবং নির্যাতনের নিন্দা জানাচ্ছে ইসলামাবাদ।
এ ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পাকিস্তান ও ভারত প্রায়ই দুই দেশের দূতাবাসের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনে বহিষ্কার-পাল্টা বহিষ্কার করে।
ভারতের সাথে কাশ্মির অঞ্চল নিয়ে পাকিস্তানের দীর্ঘ দিনের বিরোধ রয়েছে। ১৯৪৭ সালে ব্রিটেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা পাওয়ার পর কাশ্মিরের বেশির ভাগ ভূখণ্ড দখল করে নেয় ভারত। এ জন্য স্বাধীনতা লাভের পর থেকে ভারত এবং পাকিস্তান অন্তত তিনবার যুদ্ধে জড়িয়েছে; যার দু’টি যুদ্ধই হয়েছে কাশ্মিরকে কেন্দ্র করে। এ ছাড়া দুই দেশের শীর্ষ কর্মকর্তারা প্রায়ই কাশ্মির ঘিরে যুদ্ধে জড়ানোর হুমকি দেন। গত বছরের সেপ্টেম্বরে জাতিসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নিয়ে পাক-ভারত যুদ্ধ এড়াতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

 


আরো সংবাদ