২৫ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
`

বসের পাসওয়ার্ড কী!

বসের পাসওয়ার্ড কী! - ছবি : সংগৃহীত

সাইবার অপরাধী ও হ্যাকিংয়ের হাত থেকে বাঁচতে নিজেদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে শুরু করে যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ অ্যাকাউন্টে ‘প্রোটেকটিভ পাসওয়ার্ড’ দিই আমরা। কিন্তু দেখা গিয়েছে আমাদের বেশির ভাগই হয় নিজের নাম, জন্মদিন, পরিবারের প্রিয়জনের নাম বা পোষা প্রাণির নামও ব্যবহার করে থাকেন অনেকে। নিরাপত্তার স্বার্থে তাই বার বারই সাইবার বিশেষজ্ঞরা পাসওয়ার্ড বদলানোর পরামর্শ দেন।

সম্প্রতি বিয়ন্ড আইডেন্টিটি নামে একটি সংস্থা পাসওয়ার্ড-সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সমীক্ষা চালিয়েছিল। বিভিন্ন অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড কতটা সুরক্ষিত, এ বিষয়ে যে সমীক্ষা চালিয়েছিল তারা। তাতে দেখা গেছে, ৬৮.৮ শতাংশ মানুষ বিশ্বাস করেন তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড সবচেয়ে সুরক্ষিত। ৬৭.৩ শতাংশ মনে করেন তাদের কাজ-সংক্রান্ত অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত । এবং ৬৩.২ শতাংশ মানুষ বলেছেন তাদের ক্রিপ্টো ওয়ালেট পাসওয়ার্ড সবচেয়ে সুরক্ষিত।

অন্য দিকে, ৬১.৮ শতাংশ মানুষ বিশ্বাস করেন তাদের ব্যক্তিগত ইমেইল খুবই সুরক্ষিত। ৫৫.৮ শতাংশ মনে করেন ফোন, ৪৭.৫ শতাংশ ভিডিও স্ট্রিমিং এবং ৪৬.৮ শতাংশ মনে করেন মিউজিক স্ট্রিমিং পাসওয়ার্ড খুবই সুরক্ষিত।

আরো একটা বিষয়ে সমীক্ষা করেছে বিয়ন্ড আইডেন্টিটি। তা হলো, কারা মনে করছেন তাদের ব্যক্তিগত ইমেইল অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার প্রবল আশঙ্কা রয়েছে। তাদের মধ্যে ২৩.১ শতাংশ বলেছেন, তাদের ইমেইল অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে। ভিডিও স্ট্রিমিং ১৯.৯%, অনলাইন ব্যাংকিং ১৭.৯%, মিউজিক স্ট্রিমিং ১৭% এবং কর্মক্ষেত্র সংক্রান্ত অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে বলে জানিয়েছেন ১৬%।

বিয়ন্ড আইডেন্টিটি ‘গেসিং গেম’-এর ওপরও একটি সমীক্ষা চালিয়েছে। অর্থাৎ অনুমানের ভিত্তিতে কারা অন্যদের পাসওয়ার্ড আনলক করার চেষ্টা করেন। ২১.৭ শতাংশ বলেছেন, তারা তাদের সহকর্মীদের পাসওয়ার্ড অনুমানের ভিত্তিতে আনলক করার চেষ্টা করেছেন। ১৯.৯ শতাংশ বলেছেন, তারা তাদের অফিসের বসের পাসওয়ার্ড অনুমান করার চেষ্টা করছেন। আরো লক্ষণীয় বিষয়, ৭৩.৩ শতাংশ মানুষ বলেছেন অনুমানের ভিত্তিতে অন্য লোকের পাসওয়ার্ড জানার চেষ্টা করেছেন এবং সফল হয়েছেন।
সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা



আরো সংবাদ