Naya Diganta

শীতের সনেট

বিন্দু থেকে বৃত্তে ছুটি।কুয়াশায় ঢেকে রাখা মুখ
দেখতেই ছুটে আসি ধলাপাড়া ক্ষেতের বাসরে
কোথাও হলুদ মায়া লণ্ডভণ্ড আনন্দ আসরে
ফেলে রাখা ডিঙিখানি নিয়ে আসে বিরহ অসুখ।

নদীরাও স্রোতহীন ভণিতায় কাটায় ঘুমিয়ে
সেও চায় প্রাণপণে আসুক সে বসন্ত উদ্দাম
পারাপারে গতি পাক মাঝিদের গান আর ঘাম
ফুল্ললিত মধু নিক ভোমরেরা অধর ডুবিয়ে।

উত্তরে পর্বতমালা নাচে-গায় শীতের বালিকা
কেড়ে খায় ভাপা পুলি কাঁথামুড়ি পলাতকা রোদ
বৃক্ষের আকুতি শুনে হিমালয় নেয় প্রতিশোধ
মাটিও বরফ হয় পাতা কুড়ানিয়া চণ্ডালিকা!
নিদ্রাহীন শীত সব্জি ভোর ভেঙে হেঁটে আসে হাটে
চাষীর খামার থেকে উড়ে যায় পৃথিবীর ঘাটে।