Naya Diganta

ঘুমের মধ‍্যে অপরাধ স্বীকার, স্ত্রীকে পুলিশে দিলেন স্বামী

সাবধান, ঘুমের মধ্যে আপনিও নিজের বিপদ নিজে ডেকে আনতে পারেন।

যদি ঘুমের মধ‍্যে বিড়বিড় করার বাতিক থাকে। যেমনটা ঠিক ঘটল লিভারপুলের বাসিন্দা রুথ ফোর্টের সাথে। গত কয়েক মাস ধরে যে অপরাধ সে বারবার করছিল, ঘুমের মধ্যে বিড়বিড় করতে করতেই টানা বলে ফেলেছে। পাশে শুয়ে তার স্বামী অ্যান্টনি ফোর্ট সবটা শুনেও ফেলেছেন। যা নিয়ে তার সন্দেহ দানা বেঁধেছিল, ঘুমের মধ্যে স্ত্রী সবটা বলে দিতেই পুলিশকে জানিয়ে দেন অ্যান্টনি।

স্থানীয় থানায় অ্যান্টনি নিজের স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন।

পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, লিভারপুল ইউনিভার্সিটিতে একসাথে পড়াশোনা করার পর তাদের বিয়ে হয়। তিন সন্তান রয়েছে তাদের। ধনী নন তারা। দু’জনেই রোজগার করে কোনো মতে সংসার চালান। কিছুদিন আগেই কেয়ারটেকারের চাকরি পায় তার স্ত্রী রুথ। এক অসুস্থ ও বৃদ্ধ মহিলাকে দেখাশোনা করে সে। অসুস্থ মহিলা সবসময় হুইলচেয়ারে থাকেন। রুথকে তিনি বিশ্বাসও করেন। সেই বিশ্বাস এবং মহিলার অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে তার ব্যাঙ্ক থেকে হাজার টাকা চুরি করেছে রুথ।

অ্যান্টনি পুলিশকে আরো জানান, কিছুদিন আগেই ম্যাক্সিকোতে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন তারা। রুথ এত বাজে খরচ করছিল, যা দেখেই সন্দেহ হয়েছিল অ্যান্টনির। এত টাকা কোথা থেকে সে পেল? জিজ্ঞেস করায় রুথ জানিয়েছিল, তার আত্মীয় পাঠিয়েছেন। কিন্তু তারপরেও সন্দেহ দূর হয়নি অ্যান্টনির। একদিন স্ত্রীর ব্যাগে একটি অচেনা এটিএম কার্ডও দেখতে পান তিনি। পুলিশের কাছে তিনি জানান, তার স্ত্রী মোট সাত হাজার ৭০০ পাউন্ড চুরি করেছে। ঘুমের ঘোরে স্ত্রী সবটা বলে দেয়াতেই হতবাক তার স্বামী। মানসিকভাবে ভেঙেও পড়েছেন তিনি।

সূত্র : আজকাল