Naya Diganta

ওয়ালটনের নতুন ল্যাপটপ

ওয়ালটনের নতুন ল্যাপটপ

একাদশ প্রজন্মের প্রসেসরযুক্ত তিন মডেলের নতুন ল্যাপটপ বাজারে এনেছে দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। ট্যামারিন্ড এমএক্স১১ সিরিজের এই ল্যাপটপগুলো যেমন দৃষ্টিনন্দন ডিজাইনে সমৃদ্ধ, তেমনি অত্যাধুনিক সব ফিচারে ভরপুর। মডেলভেদে ল্যাপটপগুলোতে ব্যবহৃত হয়েছে ইন্টেলের একাদশ প্রজন্মের কোর আই-থ্রি থেকে কোর আই-সেভেন প্রসেসর, ৮ জিবি র্যাম, দ্রুতগতির এসএসডিসহ অত্যাধুনিক সব ফিচার। সাথে থাকছে জেনুইন উইন্ডোজ ১১ অপারেটিং সিস্টেম।
নতুন আসা কোর আই-থ্রি প্রসেসরযুক্ত ট্যামারিন্ড এমএক্স১১ মডেলের ল্যাপটপটির দাম ৫৭ হাজার ৫০০ টাকা। আর কোর আই-ফাইভ প্রসেসরযুক্ত মডেলের ল্যাপটপটির দাম ৭১ হাজার ৫০০ টাকা। অন্যদিকে, কোর আই-সেভেন প্রসেসরযুক্ত ট্যামারিন্ড এমএক্স১১ মডেলের ল্যাপটপটির দাম ৮৪ হাজার ৫০০ টাকা।
নতুন এই সিরিজের সব মডেলের ল্যাপটপে ব্যবহার করা হয়েছে ১৪ ইঞ্চির ফুল এইচডি ম্যাট আইপিএস এলইডি ব্যাকলিট ডিসপ্লে। যার কালার গ্যামুট শতভাগ এসআরজিবি। ফলে এতে স্পষ্ট ও প্রাণবন্ত ছবি দেখার অভিজ্ঞতা মিলবে। গেম খেলা, কাজ করা বা মুভি দেখায় পাওয়া যাবে অসাধারণ অনুভূতি।
ল্যাপটপগুলোর উচ্চগতি নিশ্চিতে সব মডেলেই ব্যবহার করা হয়েছে ৮ জিবি তিন হাজার ২০০ হার্জ ডিডিআরফোর র্যাম। দু’টি স্লট থাকায় প্রয়োজনে ৩২ জিবি পর্যন্ত র্যাম বাড়ানো যাবে। স্টোরেজ হিসেবে ল্যাপটপগুলোতে ৫১২ জিবির এনভিএমই এসএসডি রয়েছে, যা ১ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। কোর আই-সেভেন এবং ফাইভ ল্যাপটপের গ্রাফিক্স হিসেবে আছে ইন্টেলের এক্সই আইরিস। আর কোর আই-থ্রি মডেলে রয়েছে ইন্টেলের আল্ট্রা এইচডি গ্রাফিক্স। ল্যাপটপগুলোতে রয়েছে এলইডি ইলুমিনেটেড কিবোর্ড, যা অল্প আলোতেও টাইপিংয়ে সহায়ক হবে। স্পষ্ট ভিডিও কলের জন্য রয়েছে ১ মেগাপিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা।
দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপের নিশ্চয়তায় সব ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে শক্তিশালী ৪ সেলের স্মার্ট লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি প্যাক যা প্রায় আট ঘণ্টা পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে সমর্থ। চার্জিংয়ের জন্য রয়েছে ৬৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং অ্যাডাপ্টার, যা দ্রুত ব্যাটারি রিচার্জ করতে পারবে। ল্যাপটপগুলোতে গ্রাহকরা ওয়ালটন সার্ভিস সেন্টার থেকে দুই বছরের বিক্রয়োত্তর সেবা পাবেন।