Naya Diganta

জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই : গয়েশ্বর

দেশের চলমান সঙ্কট নিরসনে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার কোনো বিকল্প নেই মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, জিয়াউর রহমান পথে পথে হেঁটেছেন, খাল খনন করেছেন, মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছেন, তাই তিনি রাজাদের রাজা ছিলেন। তিনি সফল রাষ্ট্রপতি ছিলেন। সাংস্কৃতিক অঙ্গনে কবিতা, গানের মাধ্যমে অনেক কিছু করার আছে। কারণ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের কোনো সীমারেখা নেই। তাই জিয়াউর রহমানের আদর্শ অনুসরণ করে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের ভেতর দিয়েই গণমুখী আন্দোলনেই সফলতার দোরগোড়ায় পৌঁছাতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
গয়েশ্বর বলেন, জিয়াউর রহমানের জীবনাদর্শনেই গণতন্ত্রকে মুক্ত করার নির্দেশনা রয়েছে। জিয়াউর রহমানের নীতি, আদর্শ ও নির্দেশনা ধারণ করে ঐক্যবদ্ধ থেকে আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রকে তথা গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, তারুণ্যের অহঙ্কার তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৬তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা-জাসাসের আয়োজনে এই আলোচনা সভা ও প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জাসাসের যুগ্ম আহ্বায়ক লিয়াকত আলী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জাসাসের সদস্য সচিব জাকির হোসেন রোকন। আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সদস্য লে. কর্নেল (অব:) এম এ লতিফ খান, সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন আহমেদ উজ্জ্বল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, জাসাসের ইথুন বাবু, মো: ফেরদৌস ফকির, ইঞ্জিনিয়ার জাকির হোসেন, সদস্য মাকসুদুর রহমান টিপু, রফিকুল ইসলাম স্বপন, শাহ মো: বিল্লাল হোসেন, নাসির উদ্দিন মিলন, শিহাব খান, আশরাফুল ইসলাম দিপু, শফিকুল হাসান রতন, মিজান ভাণ্ডারী, আবদুল মালেক মুন্সিসহ বিভিন্ন থানার নেতৃবৃন্দ।