Naya Diganta

লিগ কাপের সেমিতে লিভারপুলকে রুখে দিলে ১০ জনের আর্সেনাল

শক্তিশালী লিভারপুলকে রুখে দিল আর্সেনাল।

প্রায় এক ঘণ্টারও বেশি সময় ১০ জন খেলোয়াড় নিয়ে খেলে লিগ কাপের সেমি-ফাইনালের প্রথম লেগে শক্তিশালী লিভারপুলকে রুখে দিল আর্সেনাল। বৃহস্পতিবার অ্যানফিল্ডে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে।

সাবেক অধিনায়ক গ্রানিত জাকার বাড়াবাড়িতে কারণে ম্যাচে আরেকদফা ধুঁকতে হলো গানারদের। ম্যাচের ২৪ মিনিটে দিয়োগো জোতার বুকে বুট দিয়ে আঘাত করে লাল কার্ড দেখেন জাকা। তবে ১০ জনের দলের বিপক্ষে পাওয়া সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছে লিভারপুল। এই সময় দুই স্ট্রাইকার মোহাম্মদ সালাহ ও সাদিও মানের অনুপস্থিতি দারুণভাবে অনুভব করেছে তারা। অবশ্য বেশ কটি আক্রমণ রচনা করেও সফলতা পায়নি রেডরা।

খেলা শেষে আর্সেনালের কোচ মাইকেল আর্তেতা বলেন, ‘আমরা পরিস্থিতি সফলভাবে সামাল দিয়েছি। খেলোয়াড়রা দলগতভাবে দৃঢ়তার সাথে লড়ে গেছে। আপনারা তাদের আবেগ দেখেছেন, কোনোভাবেই হার মানতে রাজি ছিল না।’

সেমি-ফাইনালের প্রথম লেগের ম্যাচটি মূলত হওয়ার কথা ছিল গত সপ্তাহে এমিরেটসে। কিন্তু লিভারপুল শিবিরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ম্যাচটি স্থগিত হয়ে যায়।

জাতীয় দলের হয়ে আফ্রিকান নেশন্স কাপে অংশ নিচ্ছেন সালাহ ও মানে। তারপরও করোনার সংক্রমণ কাটিয়ে ওঠা খেলোয়াড়দের নিয়ে বেশ শক্তিশালী দলই গঠন করেছিলেন লিভারপুলের কোচ জার্গেন ক্লপ।

শুরু থেকেই আগ্রাসী মেজাজে ছিল স্বাগতিক লিভারপুল। ১৫ মিনিটের মধ্যেই টাকুমি মিনামিনোর ক্রসের বল অল্পের দক্ষতার সাথে ফিরিয়ে দেন বেন হোয়াইট। এটি ছিল লাল কার্ড প্রদর্শনের আগে লিভারপুলের সেরা সুযোগ। নানা সময় শৃঙ্খলার ব্যত্যয় ঘটালেও জাকা হচ্ছেন আর্টেটার গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। যিনি সূচনালগ্নেই মাঠ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন লাল কার্ড দেখে। এটি ছিল চলতি মৌসুমে তার দ্বিতীয় লাল কার্ড দেখা। আগামী রোববার উত্তর লন্ডন ডার্বিতে টটেনহ্যামের বিপক্ষে খেলতে পারবেন না তিনি। শুধু তাই নয় আগামী বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় লেগের সেমিতেও খেলতে পারবেন না জাকা।

খেলা শেষে ক্লপ বলেন, ‘তাদের লাল কার্ডের চেয়েও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ ছিল গোল পাওয়া। কার্ড প্রদর্শনের পর থেকে মনে হয়েছে আমরা চাপে পড়ে গেছি।

তবে এটি দুই লেগের খেলা। সেই হিসেবে এটি হচ্ছে প্রথমার্ধের বিরতি। এই প্রথমার্ধে গোলশূন্য ড্র, আমি বিশ্বাস করতে পারছি না।’

সূত্র : বাসস