Naya Diganta

স্কুল কারিকুলামে যুক্ত হচ্ছে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধের উপায়

পরবর্তী শিক্ষা বছর থেকেই (২০২৩ সাল) স্কুল কারিকুলামে যুক্ত হবে বাল্যবিয়ে ও প্রতিরোধের উপায়। স্কুল শিক্ষার্থীদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গতকাল ভার্চ্যুয়াল এক সভায় যুক্ত হয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী এ তথ্য জানান। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো: জাকির হোসেন আরো বলেন, বাস্তবতার আলোকে এবং বাল্যবিয়ে রোধে স্কুল কারিকুলামে (শিক্ষাক্রম) এ বিষয় তুলে ধরতে উদ্যোগ নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। আমরা মনে করছি এই বিষয়ে পাঠ্যপুস্তকে যুক্ত হলে বাল্যবিয়ে না দিলে সুফলটা কী হবে তা শিশুদের সুন্দরভাবে বোঝানো যাবে। প্রতিমন্ত্রী কুড়িগ্রামের রাজারহাট হেলিপ্যাড মাঠে রাজারহাট উপজেলাকে বাল্যবিয়েমুক্ত ঘোষণা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় (ভার্চুয়ালি) তিনি এ কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার ন্যাশনাল হেল্প লাইন, ১০৯ ও ৯৯৯ চালু করেছে। এই সংখ্যাটি আবার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের সব বইয়ের পেছনে প্রিন্ট করে দেয়া হয়েছে যেখানে বাল্যবিয়ে হবে অথবা নারী নির্যাতন হবে তা জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া যায়। এর সুফলও এখন পাওয়া যাচ্ছে। বাংলাদেশের মেয়েরা এখন নিজেরা নিজেদের বিয়ে বন্ধ করছে এবং এ জন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিও পাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, বাল্যবিয়ে সমাজের অভিশাপ। এটি নারীর বিকাশ ও স্বাবলম্বী হওয়ার বড় একটি বাধা; যা দেশের অগ্রগতির অন্তরায়। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারী। এই জনগোষ্ঠীকে পেছনে ফেলে কোনো দেশের সত্যিকার উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই সমাজকে বাল্যবিয়ের অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে সরকারের বিরামহীন প্রয়াস অব্যাহত আছে।