Naya Diganta

চকরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ, পুননির্বাচন দাবি ৬ প্রার্থীর

চকরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফলাফল কারচুপি ও প্রভাব বিস্তারসহ অনিয়মের অভিযোগ তুলে একটি ইউনিয়নে পুননির্বাচনের দাবি করেছেন ৬ প্রার্থী। বুধবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটানিং
কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তারা। সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী আবু তৈয়ব ও ৫ জন মেম্বার প্রার্থী  এসব অভিযোগ করেন।
জানা গেছে, ২৮ নভেম্বর ইভিএম পদ্ধতিতে সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধীতা করেন বর্তমান চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে নবী হোসেন ও ঘোড়া প্রতীক নিয়ে আবু তৈয়ব।
ঘোড়া প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু তৈয়ব অভিযোগ করেন, ভোটের আগেরদিন রাতের আধাঁরে স্বতন্ত্র প্রার্থী নবী হোসেন উপজেলার এক বড় নেতাকে সাথে নিয়ে প্রতি কেন্দ্রে গিয়ে প্রিসাইডিং অফিসারদের ১০ লাখ টাকা করে দিয়ে ভোটের ফলাফল পরিবর্তনের জন্য চুক্তি করেন। ফলে নির্বাচন চলাকালে কেন্দ্রে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে প্রভাব বিস্তার ও বুথভিত্তিক এজেন্টদের কাছে রেজাল্টশীট না দিয়ে প্রতি কেন্দ্রে নৌকার প্রার্থীসহ তাকে পরাজিত করে ফলাফল প্রকাশ করা হয়।
অপরদিকে, রেজাল্টশীট পরিবর্তনের অভিযোগ ভোট পূণ:গণনা অথবা পূণ:নির্বাচন চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন সাহারবিল ইউপি নির্বাচনের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী কামাল উদ্দিন (ফুটবল), একই ওয়ার্ডে মনজুর আলম  (মোরগ), ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী আবদুল হক (মোরগ), ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী রফিকুল ইসলাম (টিউবওয়েল), ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী (ফুটবল)।
চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।