Naya Diganta

ওমিক্রন ঠেকাতে কারিগরি কমিটির ৪ সুপারিশ

দেশে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রনের’ সংক্রমণ ঠেকাতে চারটি সুপারিশ করেছে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি।

দক্ষিণ আফ্রিকার পর এ ভাইরাসটি যেসব দেশে শনাক্ত হয়েছে সে দেশগুলো থেকে আসা-যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা এবং সভা-সমাবেশে জনসমাগম সীমিত করা হয়েছে সুপারিশে।

রোববার (২৮ নভেম্বর) কারিগরি পরামর্শক কমিটির ৪৮তম সভায় বিশদ আলোচনার পর এসব সুপারিশ করা হয়।

সভায় বলা হয়, করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ওমিক্রনকে ‘ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন’ হিসেবে ঘোষণা করেছে। এর বিস্তার রোধে এশিয়া, ইউরোপ ও আমেরিকার অনেক দেশ দক্ষিণ আফ্রিকাসহ আফ্রিকা অঞ্চলের কয়েকটি দেশ (জিম্বাবুয়ে, নামিবিয়া, বোতসোয়ানা, সোয়াজিল্যান্ড) থেকে যাত্রী আগমনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে (প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ ফ্লাইটসহ)।

এরই প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশেও এসব দেশ ও যেসব দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণ ছড়িয়েছে সেসব দেশ থেকে যাত্রী আগমন বন্ধের সুপারিশ করা হচ্ছে।

কোনো ব্যক্তির এসব দেশে ভ্রমণের সাম্প্রতিক (বিগত ১৪ দিনে) ইতিহাস থাকলে তাকে বাংলাদেশে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। কোভিড-১৯ পরীক্ষায় পজিটিভ হলে তাকে আইসোলেশনে রাখার সুপারিশ করা হচ্ছে।

এছাড়া প্রতিটি প্রবেশপথ (স্থল, নৌ, বিমান ও রেলপথ) স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করে পরীক্ষা ও সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থা আরো কঠোরভাবে পালন করা (স্কুল-কলেজসহ), চিকিৎসা ব্যবস্থা শক্তিশালী করা ও বিভিন্ন (রাজনৈতিক, সামাজিক, ধর্মীয়) সমাবেশে জনসমাগম সীমিত করা এবং কোভিড-১৯-এর পরীক্ষায় জনগণকে উৎসাহিত করতে বিনামূল্যে পরীক্ষা করারও সুপারিশ করা হয়েছে।

এর আগে করোনার এই নতুন সংক্রমণ উদ্বেগজনক হওয়ায় সুইজ্যারল্যান্ডের সরকারী প্রোগ্রামের উদ্দেশে যাত্রা করেও মাঝপথ থেকেই অন্য ফ্লাইটে দেশে ফিরে আসেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।