Naya Diganta

বিএনপির খালি কলসি বেশি বাজছে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিগত ২০১৮ সালের নির্বাচনের পূর্বে বিএনপি নেতারা ডান বাম মধ্যপন্থী প্রভৃতিদের নিয়ে ঐক্যের কথা বলেছেন। ঐক্য করেছেনও। কিন্তু জনগণ তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। বর্তমানেও বিএনপি নেতারা বিভিন্ন প্রকার ঐক্যের কথা বলছেন। প্রকৃতপক্ষে তাদের ঐক্যের মধ্যে প্রচণ্ড অনৈক্য বিরাজমান। কাগুজে ঐক্য হলেও তা দেশ ও জনগণের কোনো কাজে আসবে না।
তিনি বলেন, বিএনপি নেতাদের বক্তব্য এখন জনগণের নিকট হাসির খোরাকে পরিণত হয়েছে। বিএনপির খালি কলসি এখন বেশি বাজছে। মন্ত্রী গতকাল রোববার নিজ নির্বাচনী এলাকা চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় উপজেলা আাওয়ামী লীগ কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব আজ বিশে^ প্রশংসিত। জাতিসঙ্ঘসহ বিশ^ নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রীকে বিশেষ আমন্ত্রণ জানিয়ে জাতিসঙ্ঘের অধিবেশনে নিয়ে গেছেন। করোনা মহামারী মোকাবেলায় সফল হওয়া এবং করোনার মধ্যে আর্থিক সব সূচক উর্ধ্বমুখী রাখার অবিশ^াস্য গল্প বিশ^বাসী শুনতে চায়। তারা প্রধানমন্ত্রীকে অনুকরণ ও অনুসরণ করতে চায়। তাদের দেশে প্রধানমন্ত্রীর চিন্তাভাবনা ও গৃহীত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে চায়। এটা দেশের জন্য গর্বের। অথচ বিএনপি নেতৃবৃন্দ দেশের এসব সাফল্য গাথা দেখতে পায় না। তারা শুধু অপরাজনীতিতে ব্যস্ত। এ জন্যই জনগণ তাদের বারবার প্রত্যাখ্যান করেছে।
দু’বছর পরে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই দলের প্রাণ। তারাই দলের মূল শক্তি। কাজেই তাদের মতামতের ভিত্তিতে দল পরিচালিত হবে। দলের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা অপশক্তি থেকে সতর্ক থাকতে হবে। দলের সাংগঠনিক ভিত্তি আরো শক্তিশালী করতে হবে।
রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ, কৃষক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ প্রভৃতি অঙ্গসংগঠনের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলের তৃণমূলের চাহিদার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। প্রতি ইউনিয়ন থেকে তিনজনের নাম প্রস্তাব করতে হবে। যাচাই বাচাই করে নেতৃবৃন্দ দলীয় প্রার্থী ঠিক করবেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল মোনাফের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজনকুমার তালুকদার, পৌরমেয়র শাহাজাহান সিকদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য ইফতেখার হোসেন বাবুল, কামরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম, আকতার হোসেন খান, আবুল কাশেম চিশতিসহ যুবলীগ ছাত্রলীগ মহিলালীগ কৃষকলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ বর্ধিত সভায় উপস্থিত ছিলেন।