Naya Diganta

প্রকৌশলীর বাড়ি ভারতে, অফিস করেন সিলেটে

প্রকৌশলীর বাড়ি ভারতে, অফিস করেন সিলেটে

চাকরি করেন সড়ক ও জনপথ অধিদফতরে কিন্তু বাড়ি তার ভারতে। সরকারের একটি দায়িত্বশীল মন্ত্রণালয়ের অধীনে কিভাবে সে কাজ করছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। অবৈধভাবে ভারতে যাওয়া আসা করেন ওই কর্মকর্তা। তার বিরুদ্ধে রয়েছে দুর্নীতিরও অভিযোগ। তিনি হচ্ছেন সিলেট জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহা। তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে সংসদীয় কমিটিতে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছিল সংসদীয় কমিটি। সচিব আর একজন যুগ্ম সচিবকে দিয়ে তদন্ত করেছেন। সেই তদন্তে তুষার কান্তি সাহাকে দোষীও করা হয়নি আবার ছাড়ও দেওয়া হয়নি। দায়সারাভাবে তদন্ত হওয়ায় আমলে নেয়নি সংসদীয় কমিটি। এজন্য পুনরায় সচিবকে দিয়ে তদন্ত করাতে বলা হয়েছে। সচিব না পারলে অন্তত অতিরিক্ত সচিব মর্যাদার কাউকে দিয়ে তদন্ত করার কথা বলা হয়েছে।

আগামী ১০ দিনের মধ্যে এসংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য সচিবকে বলা হয়েছে। এবিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির একাদশ বৈঠকে রোববার কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেনকে বলেন, অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি তদন্ত করে বলা যাবে। কিভাবে একজন সরকারি কর্মকর্তা অবৈধ পাসপোর্ট নিয়ে অন্য দেশে বসবাস করে এসব বিষয়ে তদন্ত করে বলা যাবে। আমরা সঠিক তথ্য জানতেই আবারও তদন্তের কথা বলেছি।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেনের সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, এনামুল হক, মো. আবু জাহির, রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক, মো. ছলিম উদ্দীন তরফদার, শেখ সালাহ উদ্দিন, সৈয়দ আবু হোসেন এবং রাবেয়া আলীম অংশগ্রহণ করেন।

বৈঠকে ইতিপূর্বে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত এবং পরীক্ষা নিরীক্ষা পূর্বক রিপোর্ট প্রদানের জন্য কমিটিতে প্রেরিত ‘মহাসড়ক বিল, ২০২১’ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয় এবং প্রয়োজনীয় সংযোজন, সংশোধন ও পরিমার্জনের পর বিলটি জাতীয় সংসদে পাশের উদ্দেশ্যে সংশোধিত আকারে সংসদে রিপোর্ট প্রদানের জন্য কমিটি কর্তৃক সুপারিশ করা হয়।

এদিকে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভ জন্মদিন বিধায় কমিটির পক্ষ থেকে তাকে শুভ জন্মদিনের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানানো হয়।

বৈঠকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিবদ্বয়, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব, বিআরটিএ ও বিআরটিসি’র চেয়ারম্যানদ্বয়, পদ্মাবহুমুখী সেতু প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক, বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান টানেল প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক, সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলীসহ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দেখুন: