Naya Diganta

ব্যাটারিচালিত রিকশা ভ্যান ইজিবাইক উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবি

ব্যাটারিচালিত যানবাহন উচ্ছেদ নয় আধুনিকায়ন করে রিকশা, ভ্যান, ইজিবাইকসহ ব্যাটারিচালিত যানবাহনের লাইসেন্স প্রদান, প্রতিটি সড়ক-মহাসড়কে রিকশা, ইজিবাইকসহ স্বল্প গতির এবং জনগণের সীমিত গতির যানবাহন চলাচলের স্বার্থে পৃথক লেন, সার্ভিস রোড নির্মাণ করাসহ ৪ দফা দাবিতে রিকশা, ব্যাটারি রিকশা, ভ্যান ও ইজিবাইক চালক সংগ্রাম পরিষদের আহ্বানে গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রিকশা শ্রমিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। রিকশা, ব্যাটারি রিকশা, ভ্যান ও ইজিবাইক চালক সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক খালেকুজ্জামান লিপনের সভাপতিত্বে এবং সদস্যসচিব প্রকৌশলী ইমরান হাবিব রুমনের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল্লাহ হেল কাফ রতন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, সহসভাপতি আবদুর রাজ্জাক, স্কপের যুগ্ম সমন্বয়ক কামরুল আহসান, জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা প্রমুখ।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা ছাড়া রিকশা চলাচল বন্ধ করে দেয়া হলে একদিকে এই পেশায় নিয়োজিত প্রায় ৫০ লাখ শ্রমিক এবং তাদের ওপর নির্ভরশীল পরিবারগুলোর প্রায় আড়াই কোটি মানুষের জীবিকা হুমকির মুখে পড়বে অন্য দিকে অপ্রশস্ত সড়কগুলোতে শ্রমজীবী মানুষ, রোগী কিংবা পণ্য পরিবহন হয়ে পড়বে দুরূহ ও ব্যয়বহুল।
নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের নিম্নবিত্ত শ্রমজীবী মানুষের প্রায় ৩৫ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগের কোনো সুরক্ষা না দিয়ে ব্যাটারিচালিত রিকশা, ভ্যান, ইজিবাইককে বাদ দিয়ে শুধু ধনী করপোরেট পুঁজির ব্যবসার স্বার্থে ইলেকট্রিক মোটরযানের লাইসেন্স প্রদানের নীতিমালা প্রণয়ন করা হলে তা প্রযুক্তির সুবিধা থেকে শ্রমজীবী মানুষের বঞ্চিত করার পরিকল্পিত প্রচেষ্টা বলে গণ্য করা হবে। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, রিকশাচালকেরা নিজেরাই নিজেদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আর সরকারের রাজস্ব আয়ে কি ভূমিকা রাখছে, জলবায়ু ও দূষণরোধে কি ভূমিকা রাখছে, নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের চলাচলে কতখানি সহযোগিতা করছে, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কার্যক্রম চালু রাখতে কতটুকু ভূমিকা রাখছে তা পূর্বে সেমিনার সিম্পোজিয়াম, সভা-সমাবেশের মাধ্যমে আমরা বহুবার তুলে ধরেছি। তারপরও ব্যাটারিচালিত রিকশা ভ্যান, ইজিবাইকে বৈধতা না দেয়া বা উচ্ছেদ প্রচেষ্টা দুরভিসন্ধিপূর্ণ স্বৈরাচারী সিদ্ধান্ত বলেই চিহ্নিত হবে। বিজ্ঞপ্তি।