Naya Diganta

ঈশ্বরগঞ্জে মানবতা বিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত শহীদুল্লাহ আটক

মো: শহীদুল্লাহ ফকির

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে মানবতা বিরোধী অপরাধে এক অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আটক করা হয়।

জানা যায়, ঈশ্বরগঞ্জ পৌর এলাকার কাকনহাটি গ্রামের মৃত কমর উদ্দিন ফকিরের ছেলে মো: শহীদুল্লাহ ফকির (৭২)-এর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ২০২০ সালের ২ নভেম্বর অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে ওই অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি তদন্ত করছে ট্রাইব্যুনাল। এরই মাঝে ঈশ্বরগঞ্জ থানার এস আই শাওন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে একটি টিম বৃহস্পতিবার দুপুরে ঈশ্বরগঞ্জ পৌর এলাকার কালীবাড়ি রোড থেকে তাকে আটক করে। তবে তার বাড়ি ঈশ্বরগঞ্জ হলেও ঢাকার বনানী এলাকায় একটি বাসায় বসবাস করতেন তিনি।

ঈশ্বরগঞ্জ পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছাত্তার কমান্ডার বলেন, শহীদুল্লাহ ১৯৭১ সালে আলবদর বাহিনীর কমান্ডার ছিল। ওই সময় তিনি পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর সাথে মিলে কাজ করতো। তার নিষ্ঠুরতা ছিল সীমাহীন। তার মূল কাজ ছিল হত্যা অগ্নিসংযোগ লুটপাটসহ নানা অপকর্ম। এর মধ্যে উল্লেখ যোগ্য হচ্ছে ঈশ্বরগঞ্জ চরনিখলা উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালীন প্রধান শিক্ষক হরিদাস ভট্টাচার্য ও তার ছেলে ও মেয়েকে হত্যা করা। এছাড়াও ১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীন হওয়ার পরও কিশোরগঞ্জে তার ভূমিকা ছিল দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও পাকিস্তানের পক্ষে মিটিং।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল কাদের মিয়া বলেন, শহিদুল্লাহর বিরুদ্ধে ট্রাইবুনাল থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির বিষয় প্রক্রিয়াধীন। এ অবস্থায় তাকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতে পাঠানো হয়েছে।