Naya Diganta

ঢাকঢোল পিটিয়ে মেরিনার্সের দলবদল

সারোয়ার মোর্শেদ শাওনকে ঘিরে অনাকাক্সিক্ষত ঘটনায় মেরিনার ইয়াংসের বিপক্ষে মামলা করে মোহামেডান। জামিন নিয়ে মোহামেডানের এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা একপাশে রেখে ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে ঢাকঢোল পিটিয়েই দলবদল করতে আসে মেরিনার্স। তারা মাঠে খেলেই অপমানের জবাব দিতে চায়। চ্যাম্পিয়নের লড়াইয়ে তারা হারাতে চায় আবাহনী মোহামেডানকে।
মোহামেডানের দলবদল করতে গতকালই যাওয়ার কথা ছিল ফেডারেশনে। শেষ পর্যন্ত তারা সেটি বাতিল করেছে। আজ তারা যাবে দলবদল করতে। তবে প্রস্তুত ছিল বাহফে। গতকাল দুপুর থেকেই মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে ছিল পুলিশ প্রহরা। বিকেল ৪টায় বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে ভেপু বাজিয়ে শ’তিনেক সমর্থকদের নিয়ে হকিতে দলবদল করতে আসে মতিঝিল পাড়ার ক্লাবটি। ১৬ জন খেলোয়াড়কে দলবদল করিয়েই জানিয়ে দিলো শিরোপা পুনরুদ্ধারের জন্যই দল গড়েছে তারা।
জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মামুনুর রহমান চয়ন বলেন, ‘শিরোপা পুনরুদ্ধারের জন্যই এবার দল গড়েছে মেরিনার্স ক্লাব। অনূর্ধ্ব ২১ দলের অনেক প্লেয়ার থাকায় অভিজ্ঞদের মিশ্রণে একটি পরিপূর্ণ দল গঠন হয়েছে। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একই ধারায় খেলতে পারবো।’
দলের শক্তিশালী বিভাগ মনে করছেন ডিফেন্সকে। চয়নের কথায়, ‘আমাদের ডিফেন্স অনেক শক্তিশালী। মিডফিল্ড ও ফরোয়ার্ডও নজরকাড়া। বিদেশী প্লেয়ার যোগ হলে টুকটাক খুঁতগুলো থাকবে না বললেই চলে। ব্যালান্সড টিম হয়েছে।’
সাবেক জাতীয় দলের খেলোয়াড় ইরফান এতদিন সোনালী ব্যাংকের হয়েই খেলতেন। এবার নাম লিখালেন মেরিনার্সে। তার কথায়, ‘দলবদল কী জিনিস তা এবার বুঝেছি। ক্লাবের জন্য সবটুকু নিংড়ে দিবো।’ কোচ মামুন উর রশিদ জানালেন, ‘দলে কোনো কিছুর কমতি নেই। সবার সাথে টেক্কা দেয়ার মতো দল হয়েছে। ভালো কিছুই উপহার দিতে পারব।’
২০১৬ সালে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মেরিনার্স। ২০১৮ সালে ফাইনালে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে মোহামেডান ও মেরিনার্সের খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তারা। পরে বাহফে সভায় মোহামেডানকে চ্যাম্পিয়ন ও মেরিনার্সকে তৃতীয় স্থান দেয়া হয়। মূলত সাদা-কালো ক্লাবের সাথে রেষারেষির শুরু ওখান থেকেই।
দলে রয়েছেন জাতীয় দলের চারজন বিপ্লব, সবুজ, মিলন ও রাব্বি। অনূর্ধ্ব-২১ দলের পাপ্পু, আশিকুর, সাইজুদ্দিন ও খলিলুর। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক চয়ন এবং ইরফান। অন্য সদস্যরা হলেন- মেরাজ, লিমন, রোহান, তাসিন, শাহরুখ ও সাজু।