Naya Diganta

কক্সবাজারে এক দিনে ৩ যুবকের লাশ উদ্ধার

কক্সবাজার সৈকতের সি-গাল পয়েন্টে ভাসমান অবস্থায় শুক্রবার দুপুরে দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া সৈকত-সংলগ্ন একটি হোটেল থেকে উদ্ধার হয়েছে আরো এক যুবকের লাশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সি-গাল পয়েন্ট থেকে শুক্রবার বেলা ১টার দিকে এক তরুণের লাশ উদ্ধার করে লাইফ গার্ড কর্মীরা। এর দুঘণ্টা পর একই স্থানে ভেসে আসে আরো এক যুবকের লাশ। উদ্ধার কর্মীরা ওই যুবককে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সৈকতে উদ্ধারকর্মী মাহবুব আলম বলেন, শুক্রবার দু’দফায় সৈকতের সি-গাল পয়েন্ট থেকে দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সাগরে পানিতে ভেসে এসেছে ওই দু’জনের লাশ। বিকেল ৩ টার দিকে আনুমানিক ২৫ বছর বয়সী এক যুবককে উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাক ও মুখ দিয়ে ফেনা বের হচ্ছিল। উদ্ধার কর্মীরা ওই যুবককে দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মাহবুব আলম বলেন, এর দুই ঘণ্টা আগে বেলা ১টার দিকে সৈকতের একই স্থানে ভেসে আসা ব্যক্তির বয়স আনুমানিক ১৮ বছর। উদ্ধারকর্মীরা লাশটি দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

কক্সবাজারে ট্যুরিস্ট পুলিশের এসপি জিল্লুর রহমান জানান, মৃত একজনের নাম মো: ইমন (১৮)। তিনি কক্সবাজার শহরের কলাতলী চন্দ্রিমা মাঠ এলাকার আবুল কালামের ছেলে। তবে কী কারণে ওই তরুণের মৃত্যু হয়েছে তা জানা যায়নি।

এসপি জানান, বিকেল ৩টার দিকে সৈকতের একই পয়েন্ট থেকে আরো এক যুবককে উদ্ধার করা হয়েছে। ওই যুবকের পরিচয় শনাক্ত হয়নি। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে- তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এ ছাড়া কলাতলী এলাকায় বে-ওয়ান ডাচ হোটেল থেকে রাফসানুল হক (৩২) নামে এক পর্যটকের লাশ উদ্ধার হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে তার লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। হোটেল রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ ঠিকানা মতে, এই পর্যটকের বাড়ি চট্টগ্রামের এনায়েত বাজার এলাকায়। তার বাবার নাম সৈয়দুল হক। কিভাবে ওই পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে- ময়নাতদন্তের মাধ্যমে জানা যাবে বলে এসপি জানিয়েছেন।

সূত্র : বাসস