Naya Diganta

গাজীপুরে কেমিক্যাল গুদামে আগুন : নিহত ১, আহত ১২

গাজীপুরে কেমিক্যাল গুদামে আগুন : নিহত ১, আহত ১২

গাজীপুরে একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির কেমিক্যাল গুদামে শনিবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে কারখানার এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আরো অন্তত ১২ জন অগ্নিদ্বগ্ধ হয়েছেন।

নিহতের নাম মাসুম সিকদার (২৩)। তিনি ঢাকা জেলার দোহার উপজেলার চর কুসুমহাটি গ্রামের সূর্য সিকদারের ছেলে। তিনি ওই কারখানার ওয়েল্ডিং অপারেটর ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী শ্রমিকরা জানায়, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার দক্ষিণ ভাংনাহাটী এলাকায় ঢাকা গার্মেন্টস অ্যান্ড ওয়াশিং লিমিটেড কারখানার শ্রমিকরা শনিবার সকালে কাজ করছিলেন। এ সময় কারখানার গেইট বন্ধ করে তালা দেয়া ছিল। সকাল ১০টার দিকে কারখানার পাঁচতলা একটি ভবনের নিচ তলার কেমিক্যালের গুদামে হঠাৎ আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তেই আগুন গুদামে ছড়িয়ে পড়ে। কারখানায় আগুন ও ধোঁয়া দেখে শ্রমিকদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ দিকে আতঙ্কিত শ্রমিকরা কারখানা থেকে বের হওয়ার জন্য তাড়াহুড়া করতে থাকলে কয়েক শ্রমিক আহত হন।

এ দিকে আগুনের ধোঁয়া ও অগ্নিকাণ্ডে কেমিক্যালের সৃষ্ট বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত এবং দগ্ধ হয়ে বেশ কয়েক শ্রমিক আহত হন। একপর্যায়ে আগুন নেভাতে কারখানার পাশের ভবনের কিছু শ্রমিক ও কর্মচারী এগিয়ে গেলে কেমিক্যালের বিষাক্ত গ্যাসে ও ধোঁয়ায় আক্রান্ত হয়ে অনেকেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু এর আগেই কারখানার শ্রমিক কর্মচারীরা প্রায় আধা ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হন। এ ঘটনায় একজন ঘটনাস্থলে নিহত এবং অন্তত ১২ জন আহত ও অগ্নিদগ্ধ হন। স্থানীয়রা পুলিশের সহায়তায় আহতদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা, ময়মনসিংহ ও শ্রীপুরসহ স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠায়। পুলিশ নিহত মাসুম সিকদারের অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। অগ্নিকাণ্ডে গুদামের বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে ও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন কারখানার স্যাম্পল শাখার শ্রমিক আবু হানিফ বলেন, কেমিক্যালের গুদামে অগ্নিকাণ্ডের কারণে কেমিক্যাল থেকে সৃষ্ট বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে এক শ্রমিক সেখানে জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় তাকে উদ্ধার করতে এগিয়ে গেলে তিনিও (হানিফ) জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তিনি জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার আগে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বেশ কয়েকবার বিদ্যুৎ আসা যাওয়ার ঘটনা ঘটে।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রণয় ভূষণ দাস জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অসুস্থদের চিকিৎসার জন্য শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়। তাদের বেশিরভাগই ধোঁয়া ও কেমিক্যালের বিষাক্ত গ্যাসের কারণে শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত ছিলেন। কয়েকজনের দেহে সামান্য দ্বগ্ধ ও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এদের মধ্যে আহত চারজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় ও তিনজনকে এ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো: আব্দুল হামিদ জানান, ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই কারখানা কর্তৃপক্ষ নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আগুন নিভিয়ে ফেলে। আগুনে একজন নিহত ও কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, পুলিশ কেমিক্যালের গুদাম থেকে মাসুম সিকদারের লাশ উদ্ধার করেছে। তিনি কেমিক্যালের বিষাক্ত গ্যাসে শ্বাসকষ্ট ও আগুনে দ্বগ্ধ হয়ে মারা গেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।