Naya Diganta

রামগড়ে পাহাড় কাটতে গিয়ে মাটি চাপায় ১ জনের মৃত্যু

মৃত মিজানুর রহমান (৪২)।

খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলায় পাহাড় কাটার সময় মাটি ধসে একজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার কালাডেবা এলাকার সম্প্রুপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ওই ব্যক্তির নাম মিজানুর রহমান (৪২)। তিনি সম্প্রুপাড়া এলাকার মৃত ফরিদ মৌলভির ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো ১০ থেকে ১২ জন শ্রমিক নিয়ে পাহাড়ের মালিক মিজানুর রহমান মাটি কাটতে যান। শ্রমিকরা কাজ করার সময় মিজানুর রহমান পাহারা দিচ্ছিলেন। হঠাৎ করে পাহাড় ধসে পড়লে মিজানুর রহমান মাটির নিচে চাপা পড়েন। পরে শ্রমিক এবং এলাকাবাসীরা তাকে উদ্ধার করে রামগড় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, রামগড়ের বিভিন্ন জায়গায় স্কেভেটর দিয়ে প্রকাশ্যে অবৈধভাবে কাটা হচ্ছে পাহাড় ও জমির টপ সয়েল। পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়ক, ইটেরভাটা, বাড়ি নির্মাণ, খাল ভরাটের জন্য এসব পাহাড়ের মাটি ও টপ সয়েল ব্যবহার করা হচ্ছে। কমদামে পাহাড়ে থাকা গাছপালা কেটে মাটি বিক্রি করছে প্রভাবশালীরা। সকাল থেকেই স্কেভেটর এবং শ্রমিক দিয়ে এসব পাহাড় ও জমির টপ সয়েল কাটা হয়। দিনে এগুলো ট্রাক, মিনি ট্রাক এবং ট্রাক্টরের মতো ভারী যানবাহনে পরিবহন করা হয়। গ্রামীণ রাস্তায় এসব ভারী যানবাহন চলাচল করায় রাস্তাঘাট সহজেই নষ্ট হয়ে যায়। অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রভাবশালী হওয়ায় স্থানীয়রা মুখ খুলতে ভয় পায়।

উল্লেখ্য, কিছু দিন আগেও রামগড়ের পূর্ব চৌধুরী পাড়া এলাকায় পাহাড় কাটার সময় মাটি চাপা পড়ে ঘটনাস্থলে দু’জনের মৃত্যু হয়।

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পাহাড় কাটার সময় মাটি চাপা পড়ে মারা যাওয়া একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।