Naya Diganta

প্রকল্পে খেয়ালখুশি মতো রেট শিডিউল করা যাবে না

উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে রেট শিডিউল পরিবর্তনের ক্ষেত্রে অর্থমন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে হবে। প্রকল্পের জন্য খেয়ালখুশি মতো রেট শিডিউল পরিবর্তন করা যাবে না বলে প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট বলেছেন বলে জানান পরিকল্পনা কমিশন সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য ও সিনিয়র সচিব ড. শামসুল আলম। তিনি বলেন, স্থানীয় সরকারের বরাদ্দ যথাযথ ব্যয় হচ্ছে কি-না সেটি তদারকিরও নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে এ নির্দেশনা দেন তিনি। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে গণভবন থেকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। বৈঠক শেষে আনুষ্ঠানিক ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও প্রকল্পগুলোর ব্যাপারে বিস্তারিত জানান ড. শামসুল আলম। তিনি বলেন, নরসিংদী জেলার আড়িয়াল খাঁ নদী, হাড়িভাঙ্গা, ব্রহ্মপুত্র নদ, পাহাড়িয়া নদী, মেঘনা শাখা নদী ও পুরাতন ব্রহ্মপুত্র শাখা পুনঃখনন’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদন দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী রেট শিডিউল পরিবর্তনের ক্ষেত্রে এই অনুশাসন দেন। প্রকল্পটিতে ব্যয় বেড়েছে ৮০ শতাংশ বা ৪০৩ কোটি টাকা।
ড. শামসুল আলম জানান, প্রধানমন্ত্রী আরো বলেছেন, আমরাতো স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত বিভিন্ন সিটি করপোরেশনে অনেক প্রকল্প বরাদ্দ দিচ্ছি। কিন্তু সেগুলো যথাযথ ব্যয় হচ্ছে কি-না তা নজরদারি করতে হবে। এ সময় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী কমিটি গঠনের মাধ্যমে প্রকল্পগুলো পরিদর্শন করবেন বলে প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন।
শামসুল আলম বলেন, টেলিযোগাযোগ খাতের প্রকল্প অনুমোদনের সময় প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের নির্দেশ দিয়েছেন। এ ক্ষেত্রে হাওর, বিল ও চর এবং পাহাড়ি এলাকাকে আওতাভুক্ত করতে বলা হয়েছে।
এদিকে তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল নেটওয়ার্ক স্থাপন প্রকল্পটি উপস্থাপনের সময় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, ভারতের সেভেন সিস্টার্সে বাংলাদেশ ব্রডব্যান্ড রফতানি করছে। এরই মধ্যেই ভুটানের সাথে ব্রডব্যান্ড রফতানির চুক্তি হয়েছে। এ ছাড়া সৌদি আরব ব্রডব্যান্ড নিতে চাচ্ছে। এই তথ্যে প্রধানমন্ত্রী খুশি হয়ে সঠিক সময়ে এ রকম একটি প্রকল্প হাতে নেয়ায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান। সচিব জানান, প্রধানমন্ত্রী জানতে চেয়েছেন তারা কিভাবে নেবে, আমরা মূল লাইন থেকে দেবো নাকি কক্সবাজার থেকে। তখন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী বলেছেন, মূল লাইন থেকে সৌদি আরবকে দিতে পারব। এটি বোধহয় আমাদেরকে অপেক্ষায় থাকতে হবে যে, তারা কিভাবে নেয় বা আমরা কিভাবে দিই। সেভেন সিস্টার্স ও ভুটানের বিষয়টা নিশ্চিত হয়েছে, আমরা তাদের যথাযথভাবে সেবা দেবো।
শামসুল আলম জানান, সভায় দুই হাজার ১১৫ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে চারটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। তার মধ্যে সরকারি অর্থায়ন এক হাজার ৪৪০ কোটি ৮৭ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ৩০০ কোটি ৮৩ লাখ এবং বৈদেশিক উৎস হতে ঋণ ৩৭৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা। অনুমোদিত চারটি প্রকল্পের মধ্যে তিনটি সংশোধিত এবং একটি নতুন।
অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হলো- ৯০৩ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে নরসিংদী জেলার আড়িয়াল খাঁ নদী, হাড়িদোয়া নদী, ব্রহ্মপুত্র নদ, পাহাড়িয়া নদী, মেঘনা শাখা নদী ও পুরাতন ব্রহ্মপুত্র শাখা নদ পুনর্খনন, তিন হাজার ৩১৪ কোটি ৯৪ লাখ টাকা বর্ধিত ব্যয়ে ডিজিটাল সংযোগের জন্য টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক আধুনিকীকরণ প্রকল্পের প্রথম সংশোধন, ৬৯৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা খরচে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন প্রকল্প এবং দুই হাজার ৭৪৮ কোটি ২৯ লাখ টাকা বর্ধিত খরচে মিউনিসিপ্যাল গভার্ন্যান্স অ্যান্ড সার্ভিসেস প্রকল্পটির দ্বিতীয় সংশোধন।