Naya Diganta

ঈদ অ্যালবাম ‘আমি কি আমাকে চিনি?

গীতিকার-সুরকার, নির্মাতা ও স্থপতি এনামুল করিম নির্ঝরের কথা ও সুরে ঈদুল আজহায় প্রকাশ হচ্ছে ১৬ গানের অ্যালবাম ‘আমি কি আমাকে চিনি?’ বেঙ্গল ক্লাসিক টি-এর সহযোগিতায় ইকেএনসি নিবেদিত গানগুলোতে কণ্ঠ দিয়েছেন অটামনাল মুন ও শানিলা ইসলাম প্রমিতি।
এর মধ্যে অ্যালবামের ছয়টি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন অটামনাল মুন। বাকি দশটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তরুণ শিল্পী শানিলা ইসলাম প্রমিতি। সব গানের সঙ্গীতায়োজন করেছেন মুন। বৃহস্পতিবার ইকেএনসির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো অ্যালবামটির ব্যতিক্রমী এক প্রিমিয়ার।
ইকেএনসির ফেসবুক পেইজে অ্যালবামটিকে স্বাগত জানাতে আয়োজিত লাইভ অনুষ্ঠানে নিজ নিজ অবস্থান থেকেই যোগ দেন দেশবরেণ্য শিল্পীরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সঙ্গীত পরিচালক ও সুরকার শেখ সাদী খান, সঙ্গীতশিল্পী ফাহমিদা নবী ,
জনপ্রিয় গীতিকার জুলফিকার রাসেল, সঙ্গীত শিল্পী আগুন, সঙ্গীতশিল্পী রুমানা ইসলাম, সিটি গ্রুপের ব্র্যান্ড ম্যানেজার রুবাইয়াৎ হোসেন, সঙ্গীতশিল্পী কোনাল, সঙ্গীতশিল্পী অটামনাল মুন ও শানিলা ইসলাম প্রমিতি এবং গীতিকার-সুরকার এনামুল করিম নির্ঝর।
অনুষ্ঠানে সরাসরি উপস্থিত হতে না পারলেও অ্যালবামটিকে অডিও বার্তায় স্বাগত জানান সঙ্গীত তারকা কুমার বিশ্বজিৎ।
অতিথিরা বলেন, ‘এনামুল করিম নির্ঝর সবসময়ই ব্যতিক্রমী কাজ করে থাকেন। তেমনি একটি প্রয়াস এ অ্যালবাম। অ্যালবামের গান গেয়েছেন স্বনামধন্য নির্মাতা খান আতা ও নিলুফার ইয়াসমিনের নাতনী শানিলা ইসলাম প্রমিতি। তার মা রুমানা ইসলামও যেমন গান করেন, মামা আগুনও দেশের খ্যাতিমান শিল্পী। এমনই এক সাংস্কৃতিক পরিবারের উত্তরাধিকার যখন তার সঙ্গীতজীবনের প্রথম আত্মপকাশ মুহূর্তে উপস্থিতÑ নিশ্চয়ই তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ক্ষণ। আমরা তার সাফল্য কামনা করি। শ্রোতাদের কাছে ইতোমধ্যেই গ্রহণযোগ্য অটামনাল মুন। নিশ্চয়ই বরাবরের মতো এবারও গ্রহণযোগ্যতা পাবে তার কাজ।’ অন্যদিকে, অ্যালবামটির রূপকার এনামুল করিম নির্ঝর বলেন, ‘গান শোনার প্রযুক্তি, মাধ্যম ধারণা ও রুচির ক্রমবিবর্তনের এই সময়ে, এক নির্ঝরের গান চেষ্টা করে যাচ্ছে এক ধরনের সংযুক্তির প্রক্রিয়া গড়ে তুলতে। নতুন বাংলা গান নির্মাণকে কেন্দ্র করে কণ্ঠশিল্পী, সঙ্গীতায়োজক, যন্ত্রশিল্পী, প্রযুক্তিবিদ, শব্দশিল্পী পৃষ্ঠপোষকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সাথে শ্রোতাদের সম্প্রীতি বন্ধন আমাদের লক্ষ্য। ২০২০ সালের এই অচেনা আচমকা দুঃসময়ে কিভাবে সঙ্গীতনির্ভর মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের কাজে সক্রিয় রাখা যায়, সেই চেষ্টা চালু করতেই এবারের ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রকাশিত হলো অ্যালবামটি।’ নির্ঝর বলেন, ‘প্রচণ্ড বিচ্ছিন্নতার মধ্যে, যে যার মতো করে নিজস্বতার ঘোরে আমরা এই প্রশ্নটা করতেও ভুলে যাচ্ছি। যেন এমন বাস্তবতাই আমাদের নিয়তি।