Naya Diganta

নারী নির্যাতনের অভিযোগ ওঠার পরে সিউলের মেয়রের আত্মহত্যা

যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আনার একদিন পরে সিউলের মেয়র, সাবেক মানবাধিকার আইনজীবী এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সম্ভ্যাব্য প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী পার্ক ওন-সোন আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শুক্রবার ভোরে রাজধানীর এক পাহাড় থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। এর মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ায় অভিযোগের নাটকীয় ঘটনায় সমাপ্তি ঘটলো। দক্ষিণ কোরিয়ার কড়া পুরুষতান্ত্রিক সমাজে নারী আন্দোলন বহুক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের ধরাশায়ী করেছে।

পার্ক আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রমাণিত হলে ২০০৯ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট রোহ মো হিয়ুনের পরে তিনিই হবেন কোরিয়ার সর্বোচ্চ পর্যায়ের রাজনীতিবিদ যিনি আত্মহত্যা করলেন।

পরিবারের সদস্যদের জড়িয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে জিজ্ঞাসাবাদের পর তিনি আত্মহত্যা করেন।

ইয়ুনহাব নিউজ এজেন্সি বলেছে, পার্ক আত্মহত্যা করেছে, পুলিশ বলেছে ঘটনাস্থলে তেমন খারাপ কোন আলামত দেখা যায়নি।

পার্কের মেয়ে বৃহস্পতিবার তার পিতার নিখোঁজ হওয়ার রিপোর্ট করেন। শেষ মেসেজ পাঠানোর পরে তার মেবাইলে ঢোকা যায়নি।

মধ্য-বাম ডেমোক্রেটিক পার্টির এই হেভিওয়েট নেতা প্রায় এক দশক ধরে সিউলের মেয়র ছিলেন।