Naya Diganta

টেকনিক্যাল বিভাগে জোর বাফুফের

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের ২০-২১টি স্ট্যান্ডিং কমিটি। এর একটি হলো টেকনিক্যাল কমিটি। বাফুফের শুরু থেকেই এই টেকনিক্যাল কমিটি ছিল। আগে জাতীয় দল গঠনে বড়সড় ভূমিকা থাকত এই কমিটির। তবে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি এবং পরে ন্যাশনালস টিমস কমিটি গঠিত হওয়ার পর আড়ালেই থেকে যায় টেকনিক্যাল কমিটি। কার্যত কোনো কাজই ছিল না তাদের। বাফুফের বর্তমান কমিটিকে দায়িত্ব নেয়ার পর সহসভাপতি তাবিথ আউয়ালকে চেয়ারম্যান করে ফের গঠন করা হয় টেকনিক্যাল কমিটি। এখন ফিফা-এএফসির নজরাদরিতে এই টেকনিক্যাল কমিটি বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। তাই বাফুফেরও বেশি সিরিয়াসনেস এই কমিটিকে ঘিরে। সপ্তাহদুয়েক আগে এই কমিটি সভা করে দেশের তৃণমূল ফুটবলের উন্নয়নে কিছু প্রশংসনীয় পরিকল্পনা গ্রহণ করে। আর গতকাল গঠন করা হয় টেকনিক্যাল টিম।
এটাকে বলা হচ্ছে আধুনিক এবং করপোরেট। পরিচালিত হবে ফিফা-এএফসির সহায়তায়। টেকনিক্যাল কমিটি আগেই সুপারিশ করে পল স্মলিকে ফের বাফুফের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পদে নিয়োগ দিতে। বাফুফের নির্বাহী কমিটির সভায় তা অনুমোদিত হওয়ার কথা থাকলেও এই জুলাই মাস থেকেই তার নিয়োগ চূড়ান্ত হয়ে গেছে। করোনার জন্য বাফুফে সভা করতে পারছে না। আগস্টে পল স্মলি বাংলাদেশে এলেও চলতি জুলাই থেকে তিনি কাজ করবেন অনলাইনে। টেকনিক্যাল বিভাগ পরিচালিত হবে টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের অধীনে। জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার, বয়সভিত্তিক দলের কোচ মোস্তাফা আনোয়ার পারভেজ বাবুকে এই বিভাগের এলিট ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট প্রধান হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। মাহাবুব আলম পলোকে আধুনিক যুব উন্নয়ন প্রধান কোচ এবং কোচেস শিক্ষার প্রধান হিসেবে কাজ করছেন।
এই টেকনিক্যাল বিভাগের মাধ্যমে ফুটবলের সামগ্রিক উন্নয়নকে সারা দেশে ছড়িয়ে দেয়াই উদ্দেশ্য। নারী ফুটবলকে অগ্রাধিকার, এলিট ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট, কোচদের শিক্ষা এবং তৃণমূল ফুটবলকে অগ্রাধিকার দেবে এরা। বাফুফে সেক্রেটারি আবু নাইম সোহাগের মতে, বাফুফে এখন এএফসি-ফিফার সহায়তায় ফুটবলের সব ধরনের গঠনমূলক উন্নয়নের দিকে গুরুত্ব দেবে। বহুমুখী টেকনিক্যাল বিভাগ গঠনের ফলে সংশ্লিষ্টদের অনেক বেশি কাজ করার সুযোগ হবে।
টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান তাবিথ আউয়াল জানান, আগে টেকনিক্যাল ডিপার্টমেন্ট একজন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর দিয়ে পরিচালিত হতো। আজ থেকে একটি টেকনিক্যাল টিম গঠনের মাধ্যমে এর যাত্রা শুরু হলো। উদ্দেশ্য কোনো টেকনিক্যাল কাজে যেন আর বিলম্ব না হয়। বলেন, এই টিমের অধীনে বয়সভিত্তিক কোচিং, গোলকিপিং কোচিং, অ্যাকাডেমি এবং ক্লাব কোচিংটা থাকবে। এ ছাড়া ইয়াং ছেলে ও মেয়েদের ডেভেলপমেন্টে সম্পৃক্ত থাকতে এই টিম। এলিট কোচিং এবং এলিট ইয়ুথ ফুটবল প্রোগামের সাথেও সম্পৃক্ত থাকবে। জেলায় জেলায় বিশেষায়িত ফুটবল টুর্নামেন্ট করব আমরা। মূল লক্ষ্য একেবারে কম বয়স থেকে ফুটবলারদের সম্পৃক্ত করা।