Naya Diganta

নির্দেশনা আইসিসির : সিদ্ধান্ত সরকারের

আইসিসি একটা দিকনির্দেশনা (গাইডলাইন) তৈরি করে সদস্য দেশগুলোকে সরবরাহ করেছে। সেই দিকনির্দেশনার আলোকে পরিকল্পনা পর্যায়ের কাজগুলো এগিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে ব্যবস্থাপকদের অনলাইন সভায় এ ব্যাপারে কথাবার্তা অনেকটাই এগিয়েছে। বিসিবি সিইও জানান, দেশের পরিস্থিতি বুঝে জুনে একটা সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। সিইওর সভায় সিদ্ধান্ত হয়, জুনে সীমিত পরিসরে অফিস খোলা হবে। এরপর মাঠের ক্রিকেট ফেরাতে পরিবেশ পরিস্থিতি তৈরি করবে। সে ক্ষেত্রে অনুসরণ করা হবে আইসিসির দিকনির্দেশনা।
নিজামউদ্দিন চৌধুরীর কথায়, ‘আইসিসির গাইডলাইনে বলা হয়েছে কিভাবে অনুশীলন করা যেতে পারে সে দিকটা। প্রথমে সীমিত পরিসরে, এরপর ধাপে ধাপে দলবদ্ধ হয়ে। শুরুর দিকে ফিটনেসের ওপর গুরুত্ব দেয়া হবে। তবে সিদ্ধান্তগুলো কার্যকর করতে হবে দেশের পরিস্থিতি দেখে। আইসিসি থেকেও বলা হয়েছে, প্রতিটি দেশের সরকার যে সিদ্ধান্ত নেবে তার সঙ্গে সমন্বয় করে ক্রিকেট শুরু করতে হবে। দেশের পরিস্থিতি অনুমোদন না করলে আইসিসির গাইডলাইন কাজ করবে না।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে যারা ভালো অবস্থায় আছে তারা কী করে, সেখান থেকে ভালো জিনিসগুলো আমরা নিতে পারি। আর সে পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড কিংবা নিউজিল্যান্ডের চেয়েও বাংলাদেশ বেশি তাকিয়ে শ্রীলঙ্কা, ভারত, পাকিস্তানের দিকে। এই তিন প্রতিবেশী দেশ খেলা শুরু করলে বিসিবিও দেরি করবে না।’