Naya Diganta

করোনা বিশ্বের এক নম্বর শত্রু : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

করোনা ভাইরাসকে বিশ্বের এক নম্বর শত্রু বলে দাবি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এ দিনে চীনে ভাইরাসের প্রভাবে মৃত্যু ছাড়াল ১১০০। বিশ্বের সব চেয়ে বড় শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করা হোক করোনা ভাইরাসকে। বিবৃতি প্রকাশ করে জানালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান। দাবি করলেন,‘গুরুত্ব না দিলে এই ভাইরাসের প্রভাব সব চেয়ে বড় সন্ত্রাসী হামলার চেয়েও ভয়াবহ হতে পারে।’

এদিকে চীনে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। বুধবার পর্যন্ত সে দেশে করোনা ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ১১১৩ জনের। শুধু হুবেইতেই মৃত্যু হয়েছে আরো ৯৪ জনের।

করোনা ভাইরাস যে ক্রমশ ভয়াবহ চেহারা নেবে তার আগাম ইঙ্গিত দিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। মঙ্গলবার সংগঠনের ডিরেক্টর জেনারেল বলেন,‘সময় হয়েছে এই ভাইরাসকে মানব সমাজের সব চেয়ে বড় শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করার। এখনও যদি সমস্ত দেশ এই ভাইরাসকে যথেষ্ট গুরুত্ব না দেয়, তা হলে আগামী দিনে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হয়ে উঠবে।’

এ দিনের বক্তব্যে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কথা বলেছেন গেব্রেয়েসাস। তার বক্তব্য,‘চীন অর্থনৈতিক ভাবে শক্তিশালী রাষ্ট্র। তাই এত দিন ধরে এই ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই চালাতে পারছে। লড়াই চালিয়েও মৃত্যু মিছিল আটকানো যাচ্ছে না। বিশ্বের অর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল দেশগুলিতে যদি কোনও ভাবে এই ভাইরাস পৌঁছে যায়, তা হলে ভয়াবহ সংকট হবে। মৃত্যুর হার কয়েক গুণ বেড়ে যাবে। ফলে এখনই এ বিষয়ে যথেষ্ট সচেতন হওয়া দরকার এবং উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া দরকার।’

এদিকে চীনের অবস্থা এতটুকুও বদলায়নি। মঙ্গলবার সে দেশে করোনা মৃত্যুর সংখ্যা হাজার পেরিয়েছিল। বুধবার তা আরও একশ বেড়ে গিয়েছে। হুবেইতেই আরো ৯৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গোটা দেশে থেকে নতুন করে আরো হাজার দু'য়েক নতুন আক্রান্তের খবর মিলেছে। তবে চীনের সরকারি সংবাদ সংস্থার দাবি, আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ কমছে।

জাপানের উপকূলে দুই সপ্তাহ ধরে আটকে রাখা হয়েছে একটি প্রমোদ তরী। যার ভিতরে বেশ কিছু যাত্রীর শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবাণু মিলেছিল। বুধবার সেই প্রমোদতরির আরো ৩৯ জনের শরীরে করোনার জীবাণু মিলেছে। সব মিলিয়ে শুধুমাত্র ওই জাহাজেই করোনায় আক্রান্ত হলেন ১৭৪ জন।

সূত্র জানাচ্ছে, ওই জাহাজে সব মিলিয়ে ৩ হাজার ৭০০ জন রয়েছেন। যার মধ্যে কর্মী এবং পর্যটক মিলিয়ে প্রায় ১০০ জন ভারতীয়। সোমবার তাদের অনেকে একটি ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেন। যাতে দেখা যাচ্ছে তাদের উদ্ধারের জন্য হাত জোড় করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে তারা আবেদন জানাচ্ছেন। তাদের অভিযোগ, যে ভাবে করোনা আক্রান্তদের নিয়ে জাহাজটি উপকূলে আটকে রাখা হয়েছে তাতে দ্রুত সুস্থ ব্যক্তিদের শরীরেরও জীবাণুর সংক্রমণ ঘটছে। সূত্র : ডয়চে ভেলে।