Naya Diganta
প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা হাজী কল্যাণ পরিষদের

হজের বিমান ভাড়া ১ লাথ ৪০ হাজার টাকার প্রস্তাব জুলুমের শামিল : ড. নাসের

প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা হাজী কল্যাণ পরিষদের
হজের বিমান ভাড়া ১ লাথ ৪০ হাজার টাকার প্রস্তাব জুলুমের শামিল : ড. নাসের

বিমান মন্ত্রনালয় কর্তৃক হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে তিনগুণের সমান ১ লাখ ৪০ হাজার নির্ধারনের প্রস্তাবকে হজযাত্রীদের ওপর জুলুমের শামিল আখ্যাতি করে তা এক লাখ টাকার নীচে নামিয়ে আনার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হজ্জযাত্রী ও হাজী কল্যাণ পরিষদ।

বুধবার ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির সভাপতি ড. আব্দুল্লাহ আল নাসের এই দাবি জানিয়ে বলেন, বর্তমানে ওমরাহ যাত্রীদের ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা রুটে বিমান ভাড়া ৪৫ হাজার থেকে ৪৮ হাজার টাকা। একই রুটে হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া তিনগুণ করে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রনালয় ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা ধায্য করেছে, যা সম্পূর্ণ বেআইনি, অযৌক্তিক এবং হজযাত্রীদের উপর জুলুমের শামিল।

বিমানভাড়া বাড়িয়ে বিমান সারাবছর যা লস করেছে, তা হজযাত্রীদের কাছ থেকে উসুল করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ভাড়া এক লাখ টাকার নীচে নামিয়ে আনলেও হাজী প্রতি ৫২ হাজার টাকা বেশি প্রদান করা হচ্ছে।

ড. নাসের বলেন, বিমান ও সৌদি এয়ারকে ১ লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ হজযাত্রীর অর্ধেক করে হজযাত্রী পরিবহনের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। ফলে অর্ধেক হজযাত্রীর কাছ থেকে ৫২ হাজার টাকা করে বেশি নেয়া হলে দেশ থেকে নিরবে ৩৫৬কোটি টাকা পাচার হয়ে যাচ্ছে, যা দেশ প্রেমিক নাগরিকের নিকট কাম্য হতে পারেনা।

বিমান ভাড়া বৃদ্ধির কারণে এবার হজযাত্রীর সংখ্যা হ্রাস পাওয়ারও আশংকা ব্যক্ত করে ড. নাসের বলেন, বিমানভাড়া কমানো না হলে রোববার মতিঝিলে বাংলাদেশ বিমানের অফিসের সামনে আমরা অবস্থান ধর্মঘট করব। প্রয়োজনে হজযাত্রীরা কাফনের কাপড় পরে রাস্তায় নামবে।

আটাবের সাবেক মহাসচিব আসলাম খান বলেন, বিমানভাড়া বাড়ানো নয়, বরং কমানোর সুযোগ আছে। কারণ এখন আমাদের তিনটি বড় উড়োজাহাজ বিমানবহরে যুক্ত হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে এছাড়া মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক এয়ারলাইন্সগুলো হজযাত্রী পরিবহনের সুযোগ দেয়া, হয়রানি ছাড়া হজযাত্রীদের সরাসরি এজেন্সি থেকে টিকিট পাওয়ার ব্যবস্থা করা, সিন্ডিকেট বাতিল করার দাবি জানানো হয়।

এর আগে হাবের পক্ষ থেকে গত সপ্তাহে হাব এক সংবাদ সম্মেলনে হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া বৃদ্ধি না করতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে। তারও আগে আন্ত: মন্ত্রনালয়ের বৈঠকে বিমান ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাবের বিরোধীতা করে সংগঠনটি। ভাড়া বৃদ্ধির বিরোধীতা করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো: আব্দুল্লাহও। ধর্ম মন্ত্রনালয় হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাবে একমত না হওয়ায় হজ প্যাকেজ চূড়ান্ত করার কাজও থেমে আছে বলে জানা গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, হাবের সাবেক সভাপতি আব্দুস সোবহান ভুইয়া হাসান, বাংলাদেশ হজ্জযাত্রী ও হাজী কল্যাণ পরিষদের সহ-সভাপতি মাওলানা বশির আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাতেন, সাংগঠনিক সম্পাদক তাজাম্মুল হুসাইন, হাবের সাবেক নেতা রুহুল আমিন মিন্টু, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।