১৭ মে ২০২২, ০৩ জৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩
`

শেরপুরের এনজিওর নামে প্রতারণা, গ্রাহকের ১০ লাখ টাকা নিয়ে লাপাত্তা


শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতীতে ঋণ দেয়ার কথা বলে গ্রাহকের টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে ‘সংঘ ঝিনাইগাতী’ নামের ভুয়া একটি এনজিও প্রতিষ্ঠান।

উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের মানুষকে ভুল বুঝিয়ে প্রতারণা করে তাদের থেকে প্রায় ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায় সংস্থাটি।

সংস্থাটি স্থানীয় মানুষের বিশ্বাস অর্জনের জন্য ঝিনাইগাতী বাজারের কাঠ হাটিতে স্থানীয় ব্যবসায়ী আব্দুল হালিমের বাসায় অফিস খোলে।

গত ২০ জানুয়ারি গ্রাহকরা ঋণ নিতে হালিমের বাড়িতে এসে এনজিওর অফিসটি তালাবন্ধ দেখেন। এরপরই তারা বুঝতে পারেন তারা প্রতারণার শিকার হয়েছেন। পরে ভুক্তভোগী গ্রাহকরা সেখানে অবস্থান নেন।

প্রতারণার শিকার গ্রাহকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রায় তিন মাস ধরে ‘সহায়ক সংঘ ঝিনাইগাতী’ নামের একটি ভুয়া এনজিওর কয়েকজন মাঠকর্মী ঋণ দেয়ার নামে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে প্রচারণা শুরু করেন। ওই এনজিওর মালিক ও পরিচালক আল হারুন এবং সহকারী পরিচালক আব্দুল মালেক (হোমিও ডাক্তার) আগ্রহী গ্রাহকদের কাছ থেকে অগ্রীম সঞ্চয় বাবদ ১০ হাজার ও ফরম বাবদ ভর্তি ফি ২০০ টাকা করে উত্তোলন করেন। এভাবে ৫০০ গ্রাহকের কাছ থেকে প্রায় ১০ লাখ টাকা সংগ্রহ করে সংস্থাটি। গত ২০ জানুয়ারি তাদের আনুষ্ঠানিকভাবে ঋণ দেয়ার দিন ধার্য ছিল।

ওই দিন দুপুরে বিভিন্ন গ্রাম থেকে আসা ঋণগ্রহীতারা এনজিওর দেয়া ঠিকানা ব্যবসায়ী হালিমের বাসায় গিয়ে দেখতে পান অফিস ঘরটি তালাবদ্ধ। পরে গ্রাহকরা ওই ভুয়া সংগঠনের পরিচালক আল হারুন ও সহকারী পরিচালক আব্দুল মালেকের (হোমিও ডাক্তার) বাড়ি ঝিনাইগাতী উপজেলার উত্তর দাড়িয়ারপাড় ও ফুলহারী গ্রামে চলে যান। সেখানে গিয়ে তাদেরকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি।

ওই দুই পরিচালকের পরিবার জানায়, তারা ঢাকায় পালিয়েছে। ভুক্তভোগী গ্রাহকরা এখন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন।

নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইগাতী উপজেলার দাড়িয়ারপাড় গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আল হারুন নিজেকে ঝিনাইগাতী উপজেলার কবি সংঘের সাধারণ সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পরিশোধের সভাপতিসহ বিভিন্ন পদ পদবি পরিচয় দিয়ে ইতিপূর্বেও এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন। তার বিভিন্ন স্তরের লোকের সাথে সম্পর্ক রয়েছে। ভুক্তভোগী গ্রাহকরা সংশ্লিষ্ট আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর কাছে এর প্রতিকার চেয়েছেন।


আরো সংবাদ


premium cement
রাশিয়ার সাথে উত্তেজনার মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের হাইপারসনিক অস্ত্রের পরীক্ষা রাম মন্দির মামলায় হিন্দুদের পক্ষের সেই নরসিমা জ্ঞানবাপী মামলার বিচারপতি ন্যাটো জোটের সদস্য হওয়ার পক্ষে ভোট দিল ফিনল্যান্ড গাছের ডাল মাথায় পড়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু বিরামপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে নারী নিহত পদ্মা সেতুতে ফেরির তুলনায় টোল দেড়গুণ ফরিদপুরে উদ্ধার হওয়া বস্তাবন্দী যুবতির লাশের পরিচয় মিলেছে শ্রীলঙ্কায় ২২ এমপি ও সাবেক মন্ত্রীকে গ্রেফতারের নির্দেশ কাশ্মীর নিয়ে ভারত-ওআইসি তীব্র বিরোধ ‘ইসলামপ্রিয় নেতৃত্বের ঐক্যবদ্ধ অবস্থানকে ভয় পায় সরকার’ অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে যেভাবে সব হারালো যুবকটি

সকল