০২ আগস্ট ২০২১
`

ধর্ষণে মৃত্যুর অভিযোগ বাবার, ৩৯ দিন পর কিশোরীর লাশ উত্তোলন

ধর্ষণে মৃত্যুর অভিযোগ বাবার, ৩৯ দিন পর কিশোরীর লাশ উত্তোলন - ছবি : নয়া দিগন্ত

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে মৃত্যুর ৩৯ দিন পর এক কিশোরীর লাশ উত্তোলন করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে সোমবার দুপুরে কবরস্থান থেকে ওই লাশ উত্তোলন করা হয়। গত ১২ মে রাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলে ১৩ মে তাকে দাফন করা হয়েছিল।

জানা যায়, উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের চরআলগী গ্রামের মো: স্বপন মিয়ার ডিভোর্সের পর মেয়ে স্বর্ণা (১৬) ও অন্য সন্তানদের নিয়ে উচাখিলা বাজারে পরিত্যক্ত সরকারি একটি ভবনে বসবাস করেন। স্বর্ণা গত ১২ মে রাতে ঢাকার নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
হাসপাতালের ডেথ সার্টিফিকেটে উল্লেখ করা হয়েছে, যক্ষার জীবাণু শরীরে ছড়িয়ে পড়া এবং এই জীবাণু ব্রেইনের রক্তনালীতে বাসা বাঁধার কারণে স্ট্রোকে মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর ১৩ মে স্বর্ণার লাশ দাফন করেন উচাখিলা থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে ইসলামপুর মাদরাসার কবরস্থানে।

কিন্তু গত ২৪ মে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ এনে ময়মনসিংহের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে একটি মামলা করেন নিহত কিশোরীর বাবা স্বপন মিয়া। এতে আসামি করা হয় উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: শফিকুল ইসলাম, তার ভাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: মঞ্জুরুল হক মঞ্জু ও তরুণীর মাসহ পাঁচজনকে। গত ৩১ মে আদালতের নির্দেশে মামলাটি ঈশ্বরগঞ্জ থানায় নথিভুক্ত হয়।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, মায়ের সহায়তায় উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তরুণীটিকে বিয়ের প্রলোভনে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করে। এতে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে গর্ভপাত ঘটানো হয়। কিন্তু তাতে রক্তক্ষরণ শুরু হলে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়ার পর ১২ মে রাতে মারা যান তিনি।

পরে মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় ময়মনসিংহ গোয়েন্দা পুলিশ। মৃত্যুর সঠিক কারণ নিশ্চিত হওয়ার জন্য ময়নাতদন্তের অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার দুপুরে লাশ উত্তোলন করা হয়। ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাশপিয়া তাসরিনের উপস্থিতিতে গোয়েন্দা পুলিশ স্বর্ণার লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা ময়মনসিংহ গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মো: ফারুক আহমেদ বলেন, মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ের জন্য আদালতের নির্দেশে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলন করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।



আরো সংবাদ